প্রতিযোগিতা ১৫ ~ আমার বানানো লোভনীয় ছোট আম ফলের জুস বা শরবত ||😚প্রিয়@shy-fox 10% beneficiary।😚

in hive-129948 •  2 months ago 
আসসালামু আলাইকুম আমার প্রিয় খাদ্য প্রেমী ভাই বোনেরা😚।

সবাই কেমন আছেন?আশা করছি সৃষ্টিকর্তার অশেষ রহমতে ভালো আছেন। আমিও আলহামদুলিল্লাহ ভালো আছি।

আজকে আমি @santa14 আপনাদের সাথে চলে এলাম।আজকে আমি ফলের জুস বা শরবতের রেসিপি শেয়ার করতে যাচ্ছি। প্রথমেই @shuvo35 ভাইয়া কে অনেক অনেক ধন্যবাদ জানাই। আমাদের জন্য এতো সুন্দর ও মজাদার ফলের শরবত বা জুস তৈরির এই প্রতিযোগিতার আয়োজন
করে দেওয়ার জন্য।

আর ভাইয়া সত্যি আমার কাছে খুব ভালো লাগছে এই প্রতিযোগিতাটা। বিশেষ করে আমাদের এই রমজান মাসে এমন প্রতিযোগিতার আসলেই খুব প্রয়োজন ছিল। কারণ রমজান মাসে আমাদের সবার বাসায় অনেকেই কম বেশি বিভিন্ন রকমের ইউনিক ইউনিক শরবত বা জুস তৈরি করে।আর এই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে মজাদার সব নতুন নতুন শরবত বা জুস তৈরি শিখতে পারবো।

IMG_20220411_215524.jpg

সবার মতো করে আমিও ভাবতে ভাবতে চিন্তা করতে করতে।হঠাৎ করে মাথায় আসলো যে ছোট আম দিয়ে শরবত বা জুস তৈরি করে খেলে কেমন হয়।আর সব থেকে মজার কথা হলো আমি প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠেই আমাদের গাছের নিচে পড়ে থাকা সব আম নিয়ে আসি।প্রতিদিন ইফতারে পর মজা মজা না করে ভর্তা তৈরি করে খাই।আজকে আবার আমাদের নারিকেল গাছ থেকে ডাব পারলো অনেক। তাই ভাবলাম আজকেই তৈরি করে ফেলি ডাব আর ছোট আম দিয়ে মজাদার শরবত বা জুস। সব থেকে বড় কথা হল আমি বড় আমের চেয়ে ছোট আম খেতে অনেক বেশি পছন্দ করি। কারণ আমার সেই ছোট বেলার কথা মনে পড়ে যায় আম কুড়াতে গেলে।আর এত সুন্দর প্রতিযোগিতা যখন অংশ গ্রহণ না করে পারি বলেন তো।চলুন তাহলে এখন আর কথা না বাড়িয়ে শুরু করি আজকের আমার প্রিয় ফলের শরবত বা জুস রেসিপি।

ডাব আর ছোট আমের মজার শরবত বা জুস।

IMG_20220411_215622.jpg

উপকরণ সমূহপরিমাণ।
১.ছোট আমপরিমাণ মতো।
২.লেবুদুইটি।
৩.ডাবএকটি।
৪.ধনিয়াপাতাছয়টি।
৫.পুদিনা পাতাদশটি।
৬.বিট লবণএক চামচ।
৭.ভাজা জিরা গুঁড়োএক চামচ।
৮.চিনিপরিমাণ মতো।
৯.লবণহাফ চামচ।
১০.বরফপরিমাণ মতো।
১১. ব্লেন্ডার মেশিনএকটি।

IMG_20220411_220319.jpg

প্রথম ধাপ

IMG_20220411_220227.jpg

প্রথমে আমি নিয়ে খোসা গুলো ছাড়িয়ে নিবো। এরপর লেবু,পুদিনা পাতা,ধনিয়াপাতা, খোসা ছাড়িয়ে আম নিয়ে পরিষ্কার করে ধুয়ে নিবো।

দ্বিতীয় ধাপ

IMG_20220411_220210.jpg

এবার আম গুলো ছোট ছোট টুকরো করে কেটে নিবো। এরপর পুদিনা পাতা ও ধনিয়াপাতা কুচি করে কেটে নিয়ে নিবো। আর লেবু গুলো টুকরো করে কেটে নিয়ে নিবো।

তৃতীয় ধাপ

IMG_20220411_220302.jpg

IMG_20220411_220247.jpg

খুব কষ্টে ডাব টা কেটেছি বাসায় আমার ছোট ভাই টা নেই তাই 😥।এবার ডাব কাটা হলে এর পানি নিয়ে নিবো।

চতুর্থ ধাপ

IMG_20220411_220155.jpg

এবার এখানে বিট লবণ, জিরা গুঁড়ো, লবণ ও চিনি নিয়ে নিবো।

পঞ্চম ধাপ

IMG_20220411_220140.jpg

IMG_20220411_220116.jpg

IMG_20220411_220039.jpg

এবার ব্লেন্ডার মেশিন নিয়ে নিবো। এখন ব্লেন্ডার মেশিনে ছোট আমের টুকরো গুলো দিয়ে দিবো। এরপর অল্প পরিমাণে ডাবের পানি দিয়ে আম গুলো ব্লেন্ড করে নিবো।

ষষ্ঠ ধাপ

IMG_20220411_220019.jpg

এখন ছোট আমের টুকরো গুলো ভালো করে ব্লেন্ড হলে এবার আমি পুদিনা পাতা ও ধনিয়াপাতা কুচি দিয়ে ব্লেন্ড করে নিবো।

সপ্তম ধাপ

IMG_20220411_215958.jpg

IMG_20220411_215932.jpg

IMG_20220411_215856.jpg

এবার পুদিনা পাতা ও ধনিয়াপাতা ব্লেন্ড হলে। এখন আমি চিনি,বিট লবণ, লবণ ও ভাজা জিরা গুঁড়ো দিয়ে দিবো। এরপর কেটে রাখা লেবুর টুকরো থেকে রস সব বের করে দিয়ে দিবো।আবারও সব ডাবের পানি দিয়ে ব্লেন্ডার দিয়ে ব্লেন্ড করে নিব।

অষ্টম ধাপ

IMG_20220411_215838.jpg

IMG_20220411_215821.jpg

একটি বাটিতে বরফ ও দুই গোল করে কেটে রাখা লেবুর টুকরো এক সাথে নিয়ে নিবো। এরপর দুইটি গ্লাসে বরফ দিয়ে দিবো।

IMG_20220411_215622.jpg

IMG_20220411_215524.jpg

IMG_20220411_215451.jpg

এখন পরিবেশনের জন্য একটি গ্লাসে আমের শরবত বা জুস ছেঁকে নিয়ে নিবো। এরপর গ্লাসের পাশে একটি লেবুর টুকরো ও পুদিনা পাতা দিয়ে পরিবেশন করে নিলাম।

সত্যি বলতে আমি প্রতিদিন একটা না একটা শরবত বা জুস তৈরি করি। কিন্তু আম্মু একদম খেতে পছন্দ করে না।আম্মু কে জোর করেও খাওয়ানো যায় না। আর আজকে এই ছোট আমের শরবত বা জুস আম্মু অল্প অল্প করে সব খেয়ে নিয়েছে।আর আমাকে বলছিল কালকে আবার তৈরি করে খাওয়াতে। আমার কাছেও সত্যি অসম্ভব দারুণ লেগেছে।

আশা করি আমার আজকের ছোট আমের শরবত বা জুস তৈরি আপনাদের কাছে ভাল লেগেছে। কেমন লেগেছে দয়া করে কমেন্ট করে জানাবেন।

আজকে আমি @santa14 এই পর্যন্তই বিদায় নিলাম। ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন সবাই। আল্লাহ হাফেজ সবাই কে। কোন ভুল ত্রুটি হলে দয়া করে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন। ধন্যবাদ সবাইকে।
Authors get paid when people like you upvote their post.
If you enjoyed what you read here, create your account today and start earning FREE STEEM!
Sort Order:  

কাঁচা আমের জুস আমার কাছে খুব ভালো লাগে। তবে আমি এখনো আমাদের দিকে অতটা বড় হয়নি। কাঁচা আমের শরবত টা দারুণ তৈরি করেছেন আপু। এবং অন‍্যান‍্য অনুসাঙ্গিক উপাদানের প্রয়োগ টা ভালো ছিল। শরবত টার কালার টা সুন্দর হয়েছে। ধন্যবাদ আমাদের সঙ্গে শরবত টা শেয়ার করে নেওয়ার জন্য। আপনার জন্য শুভকামনা।।

প্রথমেই আপনাকে জানাই অভিনন্দন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করার জন্য। আপনার তৈরি করা জুস আমার বেশ ভালো লাগলো। ইফতারের সময় এমন জুস হলে আর কি লাগে। অনেক ধন্যবাদ আপনাকে আপু।

আপু আপনি চমৎকার ভাবে লোভনীয় ছোট আম ফলের জুস বা শরবত তৈরি করেছেন। দেখে মুগ্ধ হয়ে গেলাম। অনেক সুন্দর করে সাজিয়ে উপস্থাপনা করেছেন। আমিও শিখে নিলাম বাসায় তৈরী করবো। ধন্যবাদ আপনাকে

আপু অনেক সুন্দর এবং ইউনিক একটি শরবত বা জুস তৈরি করেছেন আপনি, আপনি তৈরিকৃত শরবত আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছে, অনেক সুন্দর করে থাপ গুলোর বর্ণনা দিয়েছেন, শুভকামনা রইলো আপনার জন্য মিষ্টি আপু।

এটি বেশ ভালো ছিল আম ফলের জুস রেসিপি দুর্দান্তভাবে তৈরি করেছেন। প্রতিটি ধাপ খুব সুন্দর করে উপস্থাপন করেছেন। আশা করি খুব ভালো একটি পজিশনে থাকবেন এবং আপনার উপস্থাপনা বরাবরই মাশআল্লাহ। এটার উপস্থাপনা অনেক সুন্দর।

চলমান প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করার জন্য আপনাকে অভিনন্দন। ছোট আম ব্যবহার করে আপনি অনেক চমৎকার ভাবে জুস রেসিপি তৈরি করে আমাদের মাঝে শেয়ার করেছেন। কমিউনিটি তো দেখছি অনেকেই এই রেসিপিটি তৈরি করেছে সবার রেসিপি দেখে মনে হয়েছে অনেক সুস্বাদু হয়েছে। ধন্যবাদ আপনাকে এত মজাদার একটি রেসিপি শেয়ার করার জন্য

আম বড় না হতেই আপনি ছোট আম দিয়ে খুব সুন্দর করে জুস তৈরি করে ফেলেছেন। এই রমজান মাসে এ ধরনের জুস খেতে সবাই খেতে পছন্দ করে ভালো লাগলো শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।

আমের জুস খুব সুন্দরভাবে তৈরি করেছেন আর আমের জুস তৈরির প্রতিটি ধাপ এবং ছবির সঙ্গে এত সুন্দর ভাবে বর্ণনা করেছেন। যা পড়ে যে কেউই খুব সহজেই আমের জুস তৈরি করতে পারবেন।এতো সুন্দর একটি জুস আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ আপু।

আপু খুবই সময়োপযোগী ফলের জুস তৈরি করেছেন। এখন আমের সিজন আর তাই গাছের নিচে অনেক ছোট আম কুড়িয়ে পাওয়া যায়। আম ব্যবহার করে আপনি খুবই সুস্বাদু ফলের জুস তৈরি করেছেন। যা দেখে বুঝতে পারছি খেতে খুবই মজাদার হয়েছে। আর এই মজাদার আম ফলের লোভনীয় জুস কিভাবে তৈরি করেছেন তার প্রতিটি ধাপ আমাদের মাঝে উপস্থাপন করেছেন এ জন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আপনার জন্য শুভকামনা রইল।

এভাবে শরবত বানিয়ে কখনো খাওয়া হয়নি তবে মনে হচ্ছে খেতে অনেক টক হবে। আপনার শরবতের কালার দেখতে খুবই সুন্দর হয়েছে। আপনি অনেক গুলো উপকরণ একসাথে দিয়ে এই শরবত তৈরি করেছেন দেখে ভালো লাগলো। আমার কাছে আপনার এই শরবত খুবই ইউনিক লেগেছে। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ ছোট আমের শরবত আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য। আপনার জন্য শুভকামনা রইল।

দারুন দারুন 😍
আমের শরবত তৈরি করেছেন, আমি নিশ্চিত এটি অসাধারণ লাগবে খেতে। এরসাথে ডাব, লেবু এসব দেয়াতে দারুন স্বাদের হয়েছে 👌
যাক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করার জন্য ধন্যবাদ।
ইনশাআল্লাহ ভালো কিছু হবে।

আমের জুস রেসিপি আমার কাছে অনেক ভালো লেগেছে। আপু আপনি অনেক সুন্দর ভাবে আপনার এই রেসিপি তৈরি করেছেন। এই গরমে যদি ঠান্ডা ঠান্ডা আমের জুস খাওয়া হয় তাহলে খেতে ভালো লাগবে। আপনি অনেক সুন্দর ভাবে আপনার এই রেসিপি তৈরির প্রসেস উপস্থাপন করেছেন। এজন্য আপনাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আপু আপনার জন্য শুভকামনা রইল।

Upvoted! Thank you for supporting witness @jswit.
Please check my new project, STEEM.NFT. Thank you!
default.jpg

ডাবের পানির সাথে ছোট আম দিয়ে জুস তৈরি করা আজকে প্রথম দেখলাম। আপনার এই রেসিপিটি আমার কাছে পুরোপুরি ইউনিক বলে মনে হয়েছে। ভিন্ন ধরনের জুস তৈরি করে আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ আপু।

অসাধারণ একটি জুস তৈরি করেছেন আপু ।।বিশেষ করে ডাব দেওয়াতে জুস আরও সুস্বাদু হবে আশা করি ।। ধাপ গুলো সুন্দরভাবে উপস্থাপন করেছেন যা বুঝতে সুবিধা হয়েছে।।
শুভকামনা রইল আপনার জন্য।।

আপু আপনার আমের শরবত দেখে আমার গলা শুকিয়ে গেল। আপনি অনেক সুন্দর একটি রেসিপি তৈরি করেছেন যা দেখে আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছে। আমের শরবত আমার খুবই প্রিয়। আমরা তো মাঝেমধ্যে বাড়িতে আমের শরবত তৈরি করে থাকি খাবার জন্য। ইফতারের সময় আমরা বেশিরভাগ আমের শরবত তৈরি করি। সবাই মিলে ইফতারের সময় এই রকম শরবত খেতে খুবই ভালো লাগে আমার কাছে । শুভকামনা রইল আপনার জন্য।

আপনার তৈরি ছোট আম ফলের জুস দেখে জিভে জল চলে এলো আপু। দেখতে অনেক চমৎকার লাগছে। ফলের জুস তৈরি প্রতিটি ধাপ আপনি অনেক সুন্দর ভাবে আমাদের মাঝে শেয়ার করেছেন। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ আপু। আপনার জন্য শুভকামনা রইল।

আপনার তৈরি করা ছোট আমের জুস বেশ লোভনীয় লাগছে। মনে হচ্ছে এই গরমের ভেতর অনেক তৃপ্তি পাওয়া যাবে খেলে। আপনার তৈরি পদ্ধতি আমাদের মাঝে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করেছেন। শুভকামনা রইল আপনার জন্য

আপনি ছোট আম ফলের জুসটি অসাধারণ ভাবে তৈরি করেছেন।দেখে আমার লোভ লেগে গেল। আপনি চমৎকার ভাবে এটা আমাদের মাঝে উপস্থাপন করেছেন। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ এই ধরনের রেসিপি আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য।

আমার আমের জুস খেতে খুবই ভালো লাগে। আসলে অন্যান্য জুসের থেকেই আমের জুস খেতে অনেক বেশি সুস্বাদু। আপনি আজকে ছোট আমের জুস তৈরি করেছেন আপু দেখতে বেশ লোভনীয় লাগছে। অনেক ধন্যবাদ জানাই আপনাকে

ছোট আম দিয়ে যে এত সুন্দর করে শরবত তৈরি করা যায় তা আমার জানা ছিল না। আজকে আপনি খুবই সুন্দর ভাবে ছোট আম দিয়ে লোভনীয় একটি শরবত তৈরির পদ্ধতি আমাদের মাঝে শেয়ার করেছেন আপু। এই ধরনের ফলের শরবত গরমের দিনের প্রতিটি মানুষের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজন।

একবার পান করলেই শরীর ঠান্ডা । বেশ ভালই বানিয়েছেন । শুভেচ্ছা রইল।

একদম ঠিক বলছেন ভাইয়া একবার পান করলেই শরীল ঠান্ডা হয়ে যাবে।গরমে এই ঠান্ডা শরবত বা জুস খেলে একদম প্রাণ জুড়ে যায়। অনেক ধন্যবাদ ভাইয়া, আপনার জন্য অনেক দুআ ও ভালোবাসা রইল ভাইয়া।

আম ফলের শরবতের রেসিপিটি অনেক সুন্দর হয়েছে। আম আমার প্রিয় ফলের মধ্যে একটি। আমের শরবত অনেক মজাদার হয়ে থাকে। অনেক চমৎকারভাবে আপনি রেসিপিটির ধাপগুলো আমাদের সাথে শেয়ার করেছেন।

ঠান্ডা ঠান্ডা ছোট আমের শরবত দেখেই জিভে পানি চলে আসলো। ছোট ছোট আম দিয়ে আপনি খুবই লোভনীয় উপায়ে শরবত তৈরি করেছেন। বিশেষ করে আমের শরবত এর মধ্যে ডাবের পানি দেওয়ার ব্যাপারটি আমার কাছে খুবই ইউনিক লেগেছে। আপনি খুবই সুস্বাদু একটি শরবত রেসিপি শেয়ার করেছেন আমাদের মাঝে। শুভকামনা রইল আপনার জন্য।

গঠন মূলক মন্তব্য করে উৎসাহিত করার জন্য অনেক ধন্যবাদ ভাইয়া। আপনার জন্য অনেক শুভকামনা রইল ভাইয়া।

বেশ আনকমন কিছু দেখলাম, কারন ডাব এমনিতে ভালো লাগে কিন্তু এভাবে শরবত তৈরীর জন্য ডাব ব্যবহার করা হয় সেটা জানা ছিলো না। দারুণ কিছু তৈরী করেছেন। তবে যে কোন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে বানান ভুলের বিষয়টির প্রতি বেশী যত্নশীল থাকার চেষ্টা করবেন। ধন্যবাদ

জি ভাইয়া ডাব দিয়ে শরবত খেতে সত্যি দারুণ মজার। ভাইয়া একবার বাসায় তৈরি করে খেয়ে দেখবেন দারুণ হয় খেতে। ইনশাআল্লাহ ভাইয়া সব সময় চেষ্টা করি যেনও কোনো বানান ভুল না হয়।অনেক ধন্যবাদ সুন্দর করে আমাকে উৎসাহ দেওয়ার জন্য। আপনার জন্য অনেক দুআ ও শুভকামনা রইল ভাইয়া।

ডাক, আম ইত্যাদি সংমিশ্রণে আপনি যে জুস তৈরি করেছেন। এটি দেখেই বোঝা যাচ্ছে খেতে অনেক সুস্বাদু হোবে। এছাড়া জুস টি বানানোর প্রক্রিয়া অনেক সুন্দরভাবে উপস্থাপন করেছে। ধন্যবাদ আপনাকে।

ধন্যবাদ ভাইয়া।