দক্ষিণ কোরিয়া ভ্রমণের কয়েকটি ছবি (South Korea Tour Photography) Part 02

in hive-129948 •  8 months ago  (edited)

এর আগে দক্ষিণ কোরিয়া ভ্রমণের মাত্র ছ'টি ফটোগ্রাফ শেয়ার করেছিলাম । আজকে শেয়ার করলাম আরো বেশ কয়েকটি ছবি । এই ফোটোগ্রাফগুলি আমার দক্ষিণ কোরিয়ার National Palace Museum ভ্রমণের থেকে নেওয়া হয়েছে । National Palace Museum টি কোরিয়ার Gyeongbokgung Palace এর অভ্যন্তরে অবস্থিত । মূলত কোরিয়ার রাজ পরিবারের নানান ঐত্যিবাহী পুরোনো জিনিসের সংগ্রশালা এই মিউজিয়ামটি ।

তো চলুন ঘুরে আসা যাক National Palace Museum of Korea :)


20171105_152148.jpg


নামসেন দুর্গের টাওয়ারে "সেভ ওয়াইল্ড লাইফ" থিম
আলোকচিত্র তোলার তারিখ : ০৫ নভেম্বর, ২০১৭
স্থান : Namsan Seoultower, 105, Namsangongwon-gil, Yongsan 2(i)-ga-dong, Yongsan-gu, Seoul, 04340, South Korea


20171105_174601.jpg


Gyeongbokgung Palace -এর বহির্বিভাগ
আলোকচিত্র তোলার তারিখ : ০৫ নভেম্বর, ২০১৭
স্থান : Gyeongbokgung Palace, Samcheong-ro 7na-gil, Samcheong-dong, Jongno-gu, Seoul, 03054, South Korea


20171105_174647.jpg


National Palace Museum of Korea (Gyeongbokgung Palace) -এর প্রধান প্রবেশদ্বার
আলোকচিত্র তোলার তারিখ : ০৫ নভেম্বর, ২০১৭
স্থান : Gyeongbokgung Palace, Samcheong-ro 7na-gil, Samcheong-dong, Jongno-gu, Seoul, 03054, South Korea


20171105_174909.jpg


Kings of the Joseon Dynasty, National Palace Museum of Korea (Gyeongbokgung Palace)
আলোকচিত্র তোলার তারিখ : ০৫ নভেম্বর, ২০১৭
স্থান : Gyeongbokgung Palace, Samcheong-ro 7na-gil, Samcheong-dong, Jongno-gu, Seoul, 03054, South Korea


20171105_174920.jpg


The Royal Symbolic Space, National Palace Museum of Korea (Gyeongbokgung Palace)
আলোকচিত্র তোলার তারিখ : ০৫ নভেম্বর, ২০১৭
স্থান : Gyeongbokgung Palace, Samcheong-ro 7na-gil, Samcheong-dong, Jongno-gu, Seoul, 03054, South Korea


20171105_175044.jpg


Joseon Court Ritual Life, National Palace Museum of Korea (Gyeongbokgung Palace)
আলোকচিত্র তোলার তারিখ : ০৫ নভেম্বর, ২০১৭
স্থান : Gyeongbokgung Palace, Samcheong-ro 7na-gil, Samcheong-dong, Jongno-gu, Seoul, 03054, South Korea


20171105_175059.jpg


Joseon Court Ritual Life, National Palace Museum of Korea (Gyeongbokgung Palace)
আলোকচিত্র তোলার তারিখ : ০৫ নভেম্বর, ২০১৭
স্থান : Gyeongbokgung Palace, Samcheong-ro 7na-gil, Samcheong-dong, Jongno-gu, Seoul, 03054, South Korea


20171105_175138.jpg

20171105_175208.jpg


Manuscript, National Palace Museum of Korea (Gyeongbokgung Palace)
আলোকচিত্র তোলার তারিখ : ০৫ নভেম্বর, ২০১৭
স্থান : Gyeongbokgung Palace, Samcheong-ro 7na-gil, Samcheong-dong, Jongno-gu, Seoul, 03054, South Korea


20171105_175250.jpg

20171105_175336.jpg

20171105_175403.jpg


Various arts & scluptures of Dragons & Phoenix , National Palace Museum of Korea (Gyeongbokgung Palace)
আলোকচিত্র তোলার তারিখ : ০৫ নভেম্বর, ২০১৭
স্থান : Gyeongbokgung Palace, Samcheong-ro 7na-gil, Samcheong-dong, Jongno-gu, Seoul, 03054, South Korea


20171105_175536.jpg

20171105_175634.jpg


Ancient manuscripts & artcrafts, National Palace Museum of Korea (Gyeongbokgung Palace)
আলোকচিত্র তোলার তারিখ : ০৫ নভেম্বর, ২০১৭
স্থান : Gyeongbokgung Palace, Samcheong-ro 7na-gil, Samcheong-dong, Jongno-gu, Seoul, 03054, South Korea


20171105_175746.jpg


Ancient Korean Royal Court Jewellery sets, National Palace Museum of Korea (Gyeongbokgung Palace)
আলোকচিত্র তোলার তারিখ : ০৫ নভেম্বর, ২০১৭
স্থান : Gyeongbokgung Palace, Samcheong-ro 7na-gil, Samcheong-dong, Jongno-gu, Seoul, 03054, South Korea


20171105_175838.jpg

20171105_175853.jpg


Ancient Korean Royal Court crockeries sets, National Palace Museum of Korea (Gyeongbokgung Palace)
আলোকচিত্র তোলার তারিখ : ০৫ নভেম্বর, ২০১৭
স্থান : Gyeongbokgung Palace, Samcheong-ro 7na-gil, Samcheong-dong, Jongno-gu, Seoul, 03054, South Korea


20171105_180130.jpg


Vintage Royal Car, National Palace Museum of Korea (Gyeongbokgung Palace)
আলোকচিত্র তোলার তারিখ : ০৫ নভেম্বর, ২০১৭
স্থান : Gyeongbokgung Palace, Samcheong-ro 7na-gil, Samcheong-dong, Jongno-gu, Seoul, 03054, South Korea


20171105_180320.jpg

20171105_180339.jpg


Kings of the Joseon Dynasty, National Palace Museum of Korea (Gyeongbokgung Palace)
আলোকচিত্র তোলার তারিখ : ০৫ নভেম্বর, ২০১৭
স্থান : Gyeongbokgung Palace, Samcheong-ro 7na-gil, Samcheong-dong, Jongno-gu, Seoul, 03054, South Korea


20171105_180410.jpg


Old manuscripts of royal court of Korea, National Palace Museum of Korea (Gyeongbokgung Palace)
আলোকচিত্র তোলার তারিখ : ০৫ নভেম্বর, ২০১৭
স্থান : Gyeongbokgung Palace, Samcheong-ro 7na-gil, Samcheong-dong, Jongno-gu, Seoul, 03054, South Korea


20171105_180427.jpg

20171105_180552.jpg


Royal Court Dining Table & dining sets, National Palace Museum of Korea (Gyeongbokgung Palace)
আলোকচিত্র তোলার তারিখ : ০৫ নভেম্বর, ২০১৭
স্থান : Gyeongbokgung Palace, Samcheong-ro 7na-gil, Samcheong-dong, Jongno-gu, Seoul, 03054, South Korea


ক্যামেরা পরিচিতি : samsung
ক্যামেরা মডেল : SM-G935S
ফোকাল লেংথ : ৪ মিমিঃ


Authors get paid when people like you upvote their post.
If you enjoyed what you read here, create your account today and start earning FREE STEEM!
Sort Order:  

কোরিয়ান সংস্কৃতি খুব সুন্দর, আমি সর্বদা একটি পান্ডাকে স্পর্শ করতে চেয়েছিলাম কারণ সেগুলি সুন্দর তবে তারা খুব বিপজ্জনকও, এমন বেশ কয়েকটি সংস্কৃতি রয়েছে যারা বিশ্বাস করে যে ড্রাগনগুলির অস্তিত্ব ছিল যদিও তারা সবই পৌরাণিক কাহিনী এবং কিংবদন্তি।

পুরনো প্রাসাদের গাড়ির দাম কত হবে? 🤔

বাহ্ খুব সুন্দর লাগলো আপনার করা ফটোগ্রাফি গুলো। সুন্দর সুন্দর নির্দশন আমাকে মুগ্ধ করেছে। প্রতিটি দৃশ্য খুব সুন্দর ভাবে ফটোগ্রাফি করেছেন। আমার এসব দৃশ্য পটভূমি দেখতে অনেক ভালো লাগে।শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ দাদা।😍😍

দাদা আমরা আদৌ কি দক্ষিণ কোরিয়া যেতে পারবো কিনা তা জানি না কিন্তু আপনি তাদের ঐতিহ্য ফটোর মাধ্যমে আমাদের মাঝে তুলে ধরেছেন।

দক্ষিণ কোরিয়ার ভ্রমনের ছবি গুলো আসলেই অনেক সুন্দর হয়েছে। আমার অনেক ভালো লেগেছে যা ছিল দেখার মতো আমাদের মাঝে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ দাদা।

আপনার ফটোগ্রাফির মাধ্যমে দক্ষিণ কোরিয়া সুন্দর সুন্দর জায়গা দেখতে পেলাম। আপনি খুবই সুন্দর ফটোগ্রাফি করতে পারেন। আপনার ফটোগ্রাফির দক্ষতার একজন প্রফেশনাল ফটোগ্রাফারের চায়তেও ভালো। আপনি খুবই সুন্দর ভাবে ফোটগ্রাফি করেছেন এবং ফটোগ্রাফির মাধ্যমে আমরা দক্ষিণ কোরিয়ার সুন্দর সুন্দর জায়গা দেখতে পেলাম। বিশেষ করে Gyeongbokgung Palace -এর বহির্বিভাগ এর ফটোগ্রাফিটা আমার খুবই ভালো লেগেছে। আপনার জন্য অনেক অনেক ভালোবাসা রইলো।

দাদা আপনার ফটোগ্রাফির কোন তুলনা হয় না আপনি খুবই সুন্দর ভাবে ফটোগ্রাফি করেছেন। দেখে খুবই ভালো লাগলো। রাজপরিবারের পুরোনো জিনিসের সংগ্রশালা এই মিউজিয়ামটি খুবি সুন্দর করে সাজানো, দেখেই খুব ভালো লাগলো।ধন্যবাদ দাদা আপনার ফটোগ্রাফির মাধ্যমে সুন্দর সুন্দর দৃশ্য গুলো দেখতে পেলাম। আমার খুবই ভালো লাগছে। আপনি খুবই সুন্দর ভাবে আমাদের মাঝে এই ফটোগ্রাফি গুলো উপস্থাপন করেছেন। যা দেখে আমি মুগ্ধ হয়েছি। আপনার ফটোগ্রাফির প্রশংসা করি এবং আপনার জন্য অনেক অনেক শুভেচ্ছা রইল দাদা।

Hello
We invite you to join SteemPetLovers and curate some members at
https://steemit.com/trending/hive-168194
And post all news about your pet.

দাদা প্রথমে জানাই আপনাকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। দাদা আসলেই অনেক সুন্দর একটা দেশের ঐতিহ্য জিনিসগুলো ক্যাপচার করেছেন ফটোগ্রাফির মাধ্যমে মিউজিয়াম থেকে। আসলেই এগুলো স্বচক্ষে দেখতে পাবো কিনা তা জানি না। তবে মনে হচ্ছে যেন স্বচক্ষেই দেখলাম। ধন্যবাদ দাদা দক্ষিণ কোরিয়া দেশের ঐতিহ্য জিনিস গুলো আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য। শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা রইলো।

দক্ষিণ কোরিয়ার ভ্রমনের ফটোগ্রাফি গুলো সত্যি অনেক অনেক সুন্দর ছিল। সেই রকম ফটোগ্রাফি ভালো সত্যি আমাদের দেখার বাইরে। আজকে আপনার তোলার কারণে হয়তো আমরা এত সুন্দর কিছু ছবি উপভোগ করতে পেরেছি দাদা। এত সুন্দর কিছু ফটোগ্রাফি আমাদের সবাইকে উপভোগ করার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে দাদা

দাদা আপনার তোমার প্রত্যেকটা ছবি আলাদা আলাদা রকম ভাবে সুন্দর। কোনটা ছেড়ে কোনটা কে সুন্দর বলব বুঝতে পারছি না। কিন্তু তাও জাদুঘরের ছবিগুলো আমার কাছে অসাধারণ লেগেছে। এছাড়াও জুয়েলারির যে ফটোগ্রাফি ছিল সেটি ও অনেক বেশি ভালো লেগেছে। কি যে বলব প্রত্যেকটা ছবি আমার কাছে অসম্ভব সুন্দর লাগছে। অনেক ধন্যবাদ দাদা আমরা দক্ষিণ কোরিয়ায় কখনো না যেতে পারলেও আপনার থেকে এই ফটোগ্রাফি গুলো দেখতে পেয়ে অনেক ভালো লাগলো।

শ্রদ্ধেয় দাদা আশা করি ভাল আছেন। আপনি শত ব্যস্ততার মাঝেও আমাদেরকে ভুলে যান নাই ।আমাদের মাঝে একটি পোস্ট শেয়ার করেছেন আপনার পোষ্টের মাধ্যমে দক্ষিণ কোরিয়ার সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য সম্পর্কে কিছুটা হলেও জানতে পেরেছি। সত্যি ঐ জায়গার কারু শিল্প গুলো অসাধারণ। প্রত্যেকটি আলোক চিত্র দুর্দান্ত হয়েছে। আপনার পোষ্টের মাধ্যমে অনেক কিছু দেখার সুযোগ হলো। ব্যস্ততার মাঝেও এত সুন্দর পোস্ট আমাদের মাঝে উপস্থাপন করার জন্য আপনার নিকট কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ জানাই। ভালো থাকবেন দাদা।

This post has been upvoted by @italygame witness curation trail


If you like our work and want to support us, please consider to approve our witness




CLICK HERE 👇

Come and visit Italy Community



কপালে যাওয়া আছে কিনা জানিনা,তবে বেশ অনেক কিছুই আপনি দেখাইলেন।বেশ ভালো ফটোগ্রাফি করেছেন দাদা 🥰
শুভ কামনা রইলো

দাদা আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। আপনি অনেক সুন্দর করে আমাদের সামনেই ফটোগ্রাফি গুলো উপস্থাপন করেছেন। সত্যি বলতে আপনার ফটোগ্রাফি গুলো অনেক সুন্দর হয়েছে। যা বলে বোঝাতে পারবো না। তবে দাদা দক্ষিণ কোরিয়া দেশটি অনেক সুন্দর। তবে দাদা আমার সবথেকে বেশি ভালো লেগেছে রয়েল কার টি দেখে। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ দাদা

দাদা দক্ষিণ কোরিয়ার ভ্রমণের যে আলোকচিত্রগুলো আমাদের সামনে শেয়ার করেছেন প্রত্যেকটা আলোকচিত্র সত্যি অসাধারণ ছিল, এবং প্রত্যেকটাই আনকমন আলোকচিত্র ছিল। যা সচরাচর খুব একটা দেখা যায়না। তবে আমার কাছে সবচাইতে বেশি আকর্ষণীয় ছিল ভিন্টেজ রয়েল কারটি। যা দেখতে আসলেই খুবই অসাধারণ একটি গাড়ি। অসংখ্য ধন্যবাদ দাদা এত সুন্দর সুন্দর আলোকচিত্র আমাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য।

দাদা অসাধারণ ছিলো ফটোগ্রাফি ছিলো আগের বারের থেকে এইবারের ফটোগুলা আরো বেসি৷ জিরাপের এবং গাড়ির এবং বিভিন্ন সংস্কৃতি খুব সুন্দর করে ফুটে ঊঠেছে।

অনেক অনেক ধন্যবাদ দাদা💓💓💓💓💓

Hi @rme,
my name is @ilnegro and I voted your post using steem-fanbase.com.

Please consider to approve our witness 👇

Come and visit Italy Community

দাদা অসাধারণ ছবিগুলো। কোনটা ছেড়ে কোনটা দেখব বুঝতে পারছি না। আপনার এই ছবিগুলো শেয়ার করার মাধ্যমে আমারা দক্ষিন কোরিয়ার এত সুন্দর কয়েকটি স্থান দেখতে পেলাম।
অনেক ধন্যবাদ দাদা। আপনার যাত্রা শুভ হোক।

দাদা আপনি কি সুন্দর দক্ষিণ কোরিয়ায় গিয়ে ফটোগ্রাফি করেছেন।আপনার মাধ্যমে কত সুন্দর সুন্দর ছবি দেখতে পেলাম। আমার কাছে বিশেষ করে ভিন্টেজ রয়্যাল কার,এবং কোরিয়ান মিউজিয়াম, এবং প্রাচীন জুয়েলারির ছবিটা খুব আকর্ষণীয় লেগেছে। অনেক ধন্যবাদ দাদা আপনাকে আপনার মাধ্যমে এত সুন্দর সুন্দর ছবি আমরা দেখতে পাচ্ছি। অনেক শুভকামনা রইল আপনার জন্য।।

আপনার ফটোগ্রাফি গুলো অসাধারণ হয়েছে আর ছবি ধারণ করার দক্ষতা আপনার অনেক বেশি যেটা আসলে আর সবার সঙ্গে মেলে না। আর ছবিগুলো দেখে মনে হচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়ার লোকেরা কতটা রুচিশীল এবং কতটা উন্নত।

3jpR3paJ37V8JxyWvtbhvcm5k3roJwHBR4WTALx7XaoRovoLP2LaksCYz6sjrvapc2zRCDifgNXhYdTAHSNet8JwawhxhpimmdCuFZqtcEyC8c55qyhsxGSJqqpD3sTv177P4.jpeg

দাদা ছবি গুলো দেখেই বোঝা যাচ্ছে আপনি দক্ষিণ কোরিয়া অনেক সুন্দর ভ্রমণ করেছেন এবং সুন্দর মুহূর্ত কাটিয়েছেন। প্রত্যেকটা ফটোগ্রাফি অসাধারণ হয়েছে। আর এই ছবিটার গাড়িটা আমার ভিশন পছন্দ হয়েছে। অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে দাদা আপনার সুন্দর মুহূর্ত গুলোর ফটোগ্রাফি গুলো শেয়ার করার জন্য। আপনার জন্য শুভকামনা রইলো ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন সবসময় এই কামনাই করি

জাস্ট অসাধারণ দাদা, দক্ষিণ কোরিয়া ভ্রমণ করতে গিয়ে আপনি অনেক সুন্দর সুন্দর ফটোগ্রাফি আজকে আমাদের মাঝে উপস্থাপন করেছেন। আপনার ফটোগ্রাফি দেখেই বোঝা যাচ্ছে আপনি অনেক সুন্দর একটি মুহূর্ত সেখানে অতিবাহিত করছেন। যেহেতু আপনি দেশের বাহিরে আছেন সেহেতু আমি আশা করবো আপনি সুস্থ শরীরে সুন্দরভাবে আবার আমাদের মাঝে ফিরে আসুন। আপনাকে আমাদের মাঝে নতুনভাবে ফিরে পেলে আমরা অনেক আনন্দিত হবো। যাই হোক দক্ষিণ কোরিয়া ভ্রমণের অনেক সুন্দর কিছু মুহূর্তের ফটোগ্রাফি আমাদের মাঝে চমৎকারভাবে শেয়ার করার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ দাদা 🎊🎊আপনার জন্য শুভকামনা রইল যেখানেই থাকবেন ভাল থাকবেন আশা করি🥳🥳

দাদা আমি এই ফটোগ্রাফি দেখেছি আর অবাক হয়ে তাকিয়ে আছি। যদিও আমি জানতাম কোরিয়া দেশ সম্পর্কে অনেক কিছু, কিন্তু আজ নিজের চোখে দেখতে পেলাম। প্রতিটি ছবি দেখেই বুঝা যাচ্ছে যে কোরিয়ার মানুষ কতোটা সৌখিন, আমি খাবারের জাইগা গুলো দেখলাম। অনেক ধরনের খাবার একটি টেবিলে পরিবেশন করে তারা, আমার যা যা সম্পর্কে ধারণা ছিল তাই দাদা আপনার পোস্টের মাদ্ধেমে নিজের চোখে দেখতে পারলাম। আর মিউজিয়াম তো অসাধারণ ভাবে দেখতে পেলাম। অনেক অনেক ধন্যবাদ দাদা। খুবই ভালো লেগেছে আমার কাছে।

আমি আগেই বলেছি দাদা দক্ষিন কোরিয়া এশিয়ার অন্যতম সমৃদ্ধশালী একটি দেশ। শিল্প,সাহিত্য,সংস্কৃতি, শিক্ষায় তারা বেশ উন্নত। বিশেষ করে প্রযুক্তিতে। এছাডাও তারা অসম্ভব রুচিসম্মত জাতি এবং বিলাশবহুল জীবন যাপন করতে সাচ্ছন্দ্যবোধ করে৷ আপনি আপনার পোস্টের মাধ্যমে তাদের নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস গুলো আমাদের মাঝে তুলে ধরেছেন। সেভ ওয়ার্ল্ড লাইফ থীম আমার অনেক ভালো লেগেছে। পৃথিবীকে বাঁচাবোর দারুন এক প্রতীক নির্দেশন তারা বানিয়েছেন।কোরিয়া সম্পর্কে এতো সুন্দর ভাবে ছবি তুলে ধরার জন্য ধন্যবাদ।

  • দাদা ছবি গুলো জাস্ট অসাধারণ হয়েছে, আপনার কোরিয়া ভ্রমণ এর পার্ট টু-এর ছবিগুলোর অপেক্ষা ছিলাম। আজকের পোস্টটি অসাধারণ হয়েছে, পোস্টটি পড়ে আমি অনেক মজা পেলাম । ভবিষ্যতে যদি সম্ভব হয় এমন জায়গায় অবশ্যই আমি যেতে চাইব। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ এমন মুহূর্ত গুলো আমাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য। দোয়া রইল আপনার জন্য দাদা।

আমার কাছে তাদের রাজ পরিবারের জিনিস পত্র দেখে মনে হচ্ছে তারা ভারত উপমহাদেশের রাজাদের মতো সৌখিন ছিল না। বরং বেশ সাদামাটা মনে হচ্ছে।

নামসেন দুর্গের টাওয়ারে "সেভ ওয়াইল্ড লাইফ" থিম

এর স্টাফড অ্যানিম্যাল দেখে আমি ভাবছিলাম এগুলো কি আগেকার রাজাদের সময়ে ছিল নাকি? পরে নিজের ভুল বুঝতে পারলাম। ধন্যবাদ দাদা এতো সুন্দর ছবিগুলো আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য।

দাদা আপনার তোলা ফটোগ্রাফির মাধ্যমে আমাদেরও দক্ষিণ কোরিয়ার ন্যাশনাল মিউজিয়াম এর অনেক নিদর্শন দেখতে পাওয়ার সৌভাগ্য হলো। মিউজিয়ামটি দেখতে অনেক সুন্দর, ভেতর দিকে দেখে মনে হচ্ছে রাজপ্রাসাদ। দক্ষিণ কোরিয়ায় কাটানো দিনগুলো আপনি বেশ ভালোই আনন্দের সাথে ঘুরাঘুরি করে কাটিয়েছেন। দোয়া করি আপনার আগামী সব গুলো দিন যেন আরো বেশি সুন্দর ও আনন্দময় হয়ে উঠুক। দাদা অনেক অনেক শুভকামনা রইল আপনার জন্য।

অসাধারণ দাদা খুব সুন্দর ফটোগ্রাফি।আপনার ফটোগ্রাফি দেখে বুঝাই যায়।আপনি দক্ষিণ কুরিয়া সম্পর্কে অনেক কিছুই দেখেছেন ও জেনেছেন।আপনার আলোকচিত্র গুলোর মাধ্যমে তাদের ঐতিহ্য নান্দনিক জায়গা ওই ইতিহাস কে ফুটিয়ে তুলেছেন।হয়তো আমরা কখনো এভাবে সচক্ষে কখনো এই অভিজ্ঞতা নিতে পারবো না।কিন্তু আপনর মাধ্যেমে কিছু টা হলেও দেখতে ও জানতে পারবো।আর এজন্য আপনাকে বিশেষ ধন্যবাদ দাদা।🖤

দাদা আপনি দক্ষিণ কোরিয়া ভ্রমণের বেশ কিছু ছবি অনেক সুন্দর করে আমাদের মাঝে উপস্থাপন করেছেন। দেখেই বোঝা যাচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়ার শিল্প ও সভ্যতা অনেক বেশি উন্নত। এর আগেও আপনি দক্ষিণ কোরিয়ার ভ্রমণের কয়েকটি ফটোগ্রাফি আমাদের সাথে শেয়ার করেছিলেন। সেগুলো অনেক ভাল ছিল। আজ আপনি নতুন করে আরও বেশকিছু দারুন দারুন ফটোগ্রাফি আমাদের সাথে শেয়ার করেছেন। আপনার ফটোগ্রাফির মাধ্যমে অনেক কিছু সম্পর্কে জানতে পারলাম। দক্ষিণ কোরিয়ার বিভিন্ন সুন্দর সুন্দর দৃশ্য আপনি আপনার ফটোগ্রাফির মাধ্যমে তুলে ধরেছেন। শিল্প ও সংস্কৃতির দিক দিয়ে যেহেতু দক্ষিণ কোরিয়া অনেক বেশি এগিয়ে তাই এই দেশের প্রতিটি জায়গা শিল্প বৈচিত্র্যে ভরপুর। আপনার ফটোগ্রাফিগুলো দেখলেই বোঝা যায় আপনি দারুন মুহুর্ত কাটিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ায়। এছাড়াও আপনি যে দারুণ ফটোগ্রাফি করতে পারেন এটা আপনার ফটোগ্রাফির মাধ্যমে বোঝা যাচ্ছে দাদা। ধন্যবাদ দাদা দক্ষিণ কোরিয়া ভ্রমণের দারুন কিছু ফটোগ্রাফি আমাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য।

কি বলল দাদা ছবি গুলো দেখে আমি আমার নিজের ভাষা হারিয়ে ফেলেছি।প্রত্যেকটা ছবি যেন বাস্তব রুপ ধারণ করেছে।মনে নিজের চোখে দক্ষিণ কোরিয়ায় গিয়ে দেখতেছি।অনেক ধন্যবাদ দাদা ছবিগুলো আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য

ছবিগুলো দেখার মতো ছিলো দাদা।
সেখানে না যেতে পেরে বড়ই আফসুস হচ্ছে।

সব মানুষের মনের মধ্যে কম-বেশি ইচ্ছে থেকে নিজের মাতৃভূমি ভ্রমণ করার পাশাপাশি বহির্বিশ্বের অন্যান্য দেশে ভ্রমণ করে আসা। বাইরের দেশ দেখাদেখি নিজের দেশকে আর সুন্দরভাবে গড়ে তোলার প্রত্যাশা মনের ভিতর জেগে ওঠে।
দাদা,আপনি দক্ষিণ কোরিয়া ভ্রমণ করেছেন এবং সেখানকার বিশেষ কিছু স্থানে ফটোগ্রাফি করে আমাদের উপহার হিসেবে দিয়েছেন। এর জন্য আমি অনেক খুশি এবং আনন্দিত,তাই আপনাকে জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ।

আশাকরি বাইরের দেশের বিশেষ বিশেষ উন্নয়ন আপনার মনকে বিশেষিত করবে, নিজের দেশকে সুন্দরভাবে গড়ে তোলার জন্য এবং নিজেকে জনসম্মত নাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার জন্য।

আরো বলতে চাই যে আপনার ফটোগ্রাফির পাশাপাশি আপনার পোস্টটি ছিল অসাধারণ যা আমাকে প্রভাবিত করেছে,কিভাবে বাংলা ব্লগের সুন্দর করে একটি পোস্ট তৈরী করে সেন্ড করতে হয়। তা কিছুটা হলেও ধারনা পেয়েছি।

লাস্ট কথা সব মিলিয়ে বলতে চাই, অসাধারণ! অসাধারণ! অসাধারণ! আপনার জন্য শুভকামনা প্রার্থনা করি সৃষ্টিকর্তার নিকট।

দাদা আপনার দক্ষিণ কোরিয়ার ভ্রমণের এই ছবিগুলো সত্যিই অসাধারণ। প্রতিটা ছবি দেখার মত। এত সুন্দর সুন্দর ফটোগ্রাফি করেছেন যা বলার মতো না। আপনার ফটোগ্রাফির প্রশংসা করতেই হবে। আপনি খুবই সুন্দর ভাবে ফটোগ্রাফি করতে পারেন। আপনার ফটোগ্রাফির মাধ্যমে দক্ষিণ কোরিয়ার অনেকগুলো সুন্দর সুন্দর জায়গা আমি দেখতে পেলাম। বিশেষ করে ভিনটেজ রয়্যাল কার, কোরিয়ার ন্যাশনাল প্যালেস মিউজিয়াম (গিয়েংবোকগুং প্যালেস) ফটোগ্রাফি গুলো আমার খুব ভাল লেগেছে আপনার জন্য শুভেচ্ছা রইল দাদা

বাহ দাদা আজ কিছু ঐতিহাসিক জিনিস দেখতে পেলাম। কোরিয়ার রাজ পরিবারের ব‍্যবহৃত ঐতিহাসিক জিনিসপত্র গুলো খুবই সুন্দর। এবং জাদুঘর টাও দারুণ।

সবগুলো ছবি আমার কাছে ভালো লেগেছে। অনেক ভালো ফটোগ্রাফি করেছেন দাদা। এগুলো ছবিতে দেখেও যেন শান্তি।

দাদা জীবনেও দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার মত পরিবেশ হয়তো আমার হবেনা। কিন্তু আপনার পোস্টের ফটোগ্রাফি গুলো দেখে অনেকটা দক্ষিণ কোরিয়া দেখা হয়ে যাচ্ছে। দাদা অসাধারণ ফটোগ্রাফি করেছেন। প্রতিটি ফটোগ্রাফি চোখজুড়ানো এবং চমৎকার হয়েছে। দাদা আপনার জন্য অনেক অনেক শুভকামনা রইল।

দক্ষিন কোরিয়া সত্যি অনেক সুন্দর। আপনার তুলা ছবির মাধ্যমেই তা বুঝা যাচ্ছে। একদম রাজকীয় পরিবেশ। আমার অনেক ভালো লেগেছে আপনার ফটোগ্রাফি। বিশেষ করে

Gyeongbokgung Palace -এর বহির্বিভাগ

এই ছবিটা বেশি ভালো লাগছে। যাই হোক দাদা, সব সময় আপনার শুভকামনা করি। ভালো থাকবেন দাদা।

দক্ষিণ কোরিয়ার ঐতিহ্য আপনার ছবিতে দারুণ ভাবে মূর্ত। সব সময় মিউজিয়াম আমাকে আকৃষ্ট করে তাই ন্যাশনাল প্যালেস মিউজিয়াম দেখে খুব ভালো লাগলো। ছবিতে আলোর খেলা স্পষ্ট। ভিনটেজ কার, ভাস্কর্য, প্রাচীন জুয়েলারী আলাদা করে ভালো লেগেছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের কথা অনেক শুনেছি। তবে এই সম্পর্কে ধারণা খুবই কম ছিল। আজ আপনার পোষ্টের ছবিগুলো দেখে অনেক ভালো লাগলো। প্রতিটি ফটোগ্রাফি যেন আলাদা আলাদা সৌন্দর্য বহন করে। একেকটি ফটোগ্রাফির পিছনে লুকিয়ে রয়েছে একেক ধরনের সংস্কৃতি। সভ্যতার মাপকাঠিতে কোন দেশকে পরিমাপ করতে হলে অবশ্যই সে জাতির চলাফেরা, সংস্কৃতি ও সভ্যতা লক্ষ্য করতে হবে। আমার মনে হচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়ার মানুষগুলো অনেক বেশি সংস্কৃত মনা। কারণ আপনার ফটোগ্রাফি গুলো দেখেই বুঝা যাচ্ছে প্রতিটি ছবি অনেক সাজানো গোছানো। চারদিকে যেন সংস্কৃতির ছোঁয়া লেগেই রয়েছে।

"সেভ ওয়াইল্ড লাইফ"এই ফটোগ্রাফিটি আমার খুবই ভালো লেগেছে দাদা। এই ফটোগ্রাফির মাধ্যমে বিশাল একটি অর্থ বোঝানো হয়েছে। এই ফটোগ্রাফিটি আমার কাছে দারুণ লেগেছে। এই ফটোগ্রাফিটি খুব ভালোভাবে দেখলেই এর অর্থের বিশালতা অনুভব করা যায়। অসাধারণ লেগেছে আমার। ধন্যবাদ দাদা দারুন কিছু ফটোগ্রাফি আমাদের সকলের সাথে শেয়ার করার জন্য।

আপনি দক্ষিণ কোরিয়া ভ্রমণ করে বিভিন্ন চিত্র আমাদের সাথে শেয়ার করেছেন। আমার কাছে দক্ষিণ কোরিয়ার ঘরের দৃশ্য গুলো একদম অন্যরকম লাগে। আমাদের দেশের ঘরবাড়ির সাথে দক্ষিণ কোরিয়ার ঘর গুলোর কোন মিল নেই তাই এই ঘরগুলো আমাকে বেশি আকৃষ্ট করে। কৃত্রিম ড্রাগনের চিত্র গুলো অসাধারন লেগেছে আমার কাছে।সব মিলিয়ে অসাধারণ একটি পোস্ট শেয়ার করেছেন। অনেক অনেক শুভকামনা দাদা 💚

ওয়াও দাদা এর আগের স্থান গুলোর ফটো তো ভালো ছিলো ।আজকের ফটো দেখে তো চোখ ফেরানোই যাচ্ছে না ।প্রতিটি ছবি মনে হচ্ছে বাস্তোবে দাড়িয়ে আছে এমন সুন্দর এঙ্গেলে তুলেছেন দাদা ।আর জীবনে কখন ও দেখতে পাবোনা এমন সব ফটো আপনার মাধ্যমে দেখে নিলাম ।আরও যে সব দেশে ভ্রমন করেছেন দাদা সে সব দেশের ও ফটো দেখার ইচ্ছা করছে ।আশায় থাকলাম দাদা ।ধন্যবাদ ও দোয়া রইলো দাদা আপনার ফটোএ্যালবাম থেকে এমন ফটো শেয়ার করে আমাদের দেখার সুযোগ দিয়েছেন।

দাদা,অসাধারণ ও দুর্দান্ত আকর্ষণীয় জায়গা।একবার দেখলে বারবার দেখতে ইচ্ছে করে এমন অনুভূতি।তাহলে মনে হয় একবার ভ্রমণ করলেও মনে বারবার যাওয়ার ইচ্ছেটাও দ্বিগুণ হবে।সত্যিই ফটোগ্রাফিগুলি দারুণভাবে দক্ষতার সঙ্গে ক্যাপচার করেছেন।দেখে চোখ জুড়িয়ে গেল।আমি তো শুধু চেয়ে চেয়ে দেখছিলাম ওখানের আসবাবপত্রের কায়দা -কানুনটা।তাছাড়া সবকিছু সুন্দর ও পরিপাটি ভাবে সাজানো -গোছানো।আমি কোরিয়ানদের সকল কিছুর মধ্যে একটা বিশেষ কিছু লক্ষ্য করেছি ,সেটা হলো ড্রাগনের ছবি ।প্রত্যেকটি আলোকচিত্র দেখার মতো ও অত্যন্ত আকর্ষণীয়।যা আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছে।ধন্যবাদ দাদা।

অনেক সুন্দর দেখতে পেলেসটা। ভিতরের কারুকাজে ভরপুর। কোরিয়ার অনেক নিদর্শন দেখা যায় পেলেসে রেয়েছে। আপনি মনে হয় সময়টা খুব এনজয় করেছিলেন। আদৌ কি দক্ষিণ কোরিয়া যেতে পারবো কিনা তবে আপনার ফটোগ্রাফি দেখে অনেক ভালো লাগলো দাদা। আমাদের দেখার সুযোগ করে দেয়ার জন্য ধন্যবাদ আপনাকে।

ভ্রমণ খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি অধ্যায় আমাদের জীবনের জন্য। ভালো কিছু সম্পর্কে জানতে এবং আমাদের জীবনকে বিনোদন দিতে ভ্রমণের গুরুত্ব অপরিসীম।

দক্ষিণ কোরিয়ায় ভ্রমণকালে আপনি গত পর্বে বেশ কয়েকটি ফটোগ্রাফি শেয়ার করেছেন সেগুলো আমার বেশ ভাল লেগেছে। তবে আজকের ফটোগ্রাফি গুলো কিন্তু কম নয়।

চোখ জুড়ানো ফটোগ্রাফি এবং অসাধারণ ক্যামেরাম্যানের দৃষ্টিভঙ্গি দিয়েছেন দাদা। যেগুলো সত্যি প্রশংসার দাবিদার। এক কথায় অসাধারন ছিল সমস্ত দৃশ্যপটগুলো

You have one of the best post content i have ever seen in steemit blog ,your pictures are so wonderful, and clearly positioned,indeed i emulates you sir as a mentor i pray that one day i will get to meet you and leave out of my country. I love you sir great post work.

দাদা আপনার দক্ষিণ কোরিয়া ভ্রমণের ফটোগ্রাফি গুলো এতটাই সুন্দর হয়েছে যে আমার মনে হচ্ছে যেন আমিও আপনার সঙ্গে সঙ্গে দক্ষিণ কোরিয়ার মিউজিয়াম ভ্রমণ করে এলাম । মিউজিয়াম এর ভেতরের জিনিস গুলো খুবই সুন্দর আপনার মাধ্যমে দেখার সুযোগ হলো ।আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছে ফটোগ্রাফি গুলো ।আপনার মাধ্যমে দক্ষিণ কোরিয়ার রাজপরিবারের বিভিন্ন ঐতিহ্যবাহী জিনিস আমরা দেখতে পারলাম ।সত্যিই খুবই সুন্দর আপনার ফটোগ্রাফি ।সব সময়ই আপনার ফটোগ্রাফি গুলো অনেক সুন্দর হয় ।ধন্যবাদ আপনাকে এত সুন্দর ফটোগ্রাফি শেয়ার করার জন্য।

দক্ষিণ কোরিয়া ভ্রমণের প্রত্যেকটি ছবি খুবই অসাধারণ হয়েছে।আমিতো মুগ্ধ হয়ে শুধু ছবিগুলো একাধিকবার দেখলাম। দাদা আপনার প্রতিটি ফটোগ্রাফি আমার হৃদয় ছুঁয়ে গেল।সত্যি দাদা আপনার তুলনা শুধু আপনি।।আপনার ব্লগে আপনার সাথে কাজ করে যেমন স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি ঠিক তেমনি গর্ববোধ করি।।
আমার কাছে মনে হয়েছে সমাজ পরিবর্তনের জন্য আপনি একজন দক্ষ কারিগর।।অনেক অনেক ধন্যবাদ শুভকামনা ও কৃতজ্ঞতা♥♥

দাদা,দক্ষিণ কোরিয়া সুন্দর একটি আমি দেশ। ফটোগ্রাফির মধ্যে দক্ষিণ কোরিয়ার যে ছবিগুলো আমি দেখলাম যেন মনে হচ্ছে স্বপ্নের কোন রাজ্য খুবই পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন চারিদিক। দাদা,আপনার প্রতিটা ফটোগ্রাফি মনমুগ্ধকর। খুবই ভালো লেগেছে ফটোগ্রাফি গুলো দেখে তবে আমার দ্বিতীয় ফটোগ্রাফি টা খুবই ভালো লেগেছে। ফটোগ্রাফির দৃশ্যটা অসাধারণ সুন্দর।অসংখ্য ধন্যবাদ দাদা এত সুন্দর সুন্দর ফটোগ্রাফি আমাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য।

১ম দিন দক্ষিণ কোরিয়া রাজধানী সিউলের ৬ টি স্থান আপনার সাথে ভ্রমণ করেছি।

3jpR3paJ37V8JxyWvtbhvcm5k3roJwHBR4WTALx7XaoRovt1nwf6NwX3qrtroKCehLkjAvaoCENhyc3raGeR4MaA3BAwo7AB7JScxEhHm2fgZUwW47skmzhHY51yzXAb9TsFc.jpeg

আজও দ্বিতীয় বারের মত,কোরিয়ার Gyeongbokgung Palace এ অবস্থিত, রাজ পরিবারের নানান ঐত্যিবাহী পুরোনো জিনিসের সংগ্রশালা ও মিউজিয়াম,National Palace Museum এর ১৬ টি দর্শনীয় স্থান আপনার সাথে ভ্রমন করতে পারায় নিজের চোখের উৎকর্ষতা বেড়ে গেল। যাহা মনের গভিরে প্রোথিত হল। আমি আপনার ভ্রমণ সঙ্গী হিসেবে আরো কিছু দেখার জন্য সাথেই থাকছি।
শীত সময়ের এই ভ্রমণ, আমদের কাজের ফাকের পর্যটনকে আরোও একমাত্রা বাড়িয়েছে বলে আমরা ধরে নিয়েই উপভোগ করছি। সাথে জেনেই গেলাম সেদেশের রাজা-রাজড়াদের সাদামাটা জীবন যাপনের স্মৃতি টুকুও। সাথেই আছি....

দাদা আপনার তোলা ছবি গুলো এতোটা মারাত্মক। মানে দেখার মতো গাড়ির ছবি টা অসাধারন লেগেছে আমার কাছে। শুনেছি কোরিয়া নাকি খুব সুন্দর যদিও ওদের ভাষা বুঝি না তবে ওদের লেখার এই ছবি গুলো দেখে ভালো লাগলো।

দাদা আপনার আজকের পোস্টের ছবিগুলো আমি জাস্ট একেবারে একমন দিতে দেখছিলাম।কতোটা সুন্দর ভাবে সব কিছু সাজানো,সব কিছুতেই রাজকীয় একটা ভাব, জাস্ট অসাধারণ সব মিলিয়ে।

দক্ষিণ কোরিয়ার এত সুন্দর সুন্দর ফটোগ্রাফি দেখে আমি মুগ্ধ। আপনি খুবই সুন্দরভাবে ফটোগ্রাফিগুলো করেছেন এবং আমাদের মাঝে উপস্থাপন করেছেন।এজন্য আপনার প্রতি রইল অনেক ভালোবাসা। আসলেই দক্ষিণ কোরিয়া খুবই বিলাসবহুল এবং শিল্প-সাহিত্যের দেশ। এদেশের ফটোগ্রাফির মাধ্যমে বোঝা যাচ্ছে তারা কতটা বিলাসবহুল ভাবে জীবন যাপন করে। খুবই সুন্দর লাগলো ফটোগ্রাফিগুলো। প্রত্যেকটা ফটোগ্রাফি অনেক ভালো হয়েছে। আপনার জন্য শুভেচ্ছা রইল দাদা।

ন্যাশনাল প্যালেস মিউজিয়াম দেখে রিতিমত চমকে গেলাম ☺️ কি সুন্দর সবকিছু, বলা বাহুল্য ❣️
ভিনটেজ রয়েল কার আর ক্রোকারিজ গুলো মনমাতানো ছিল ♥️

মনে হচ্ছিল সত্যিই যদি দেখে আসতে পারতাম একবার সবকিছু খুব আনন্দ লাগতো।
যাক আপনার চোখ দিয়ে সবকিছু দেখছি সৌভাগ্য আমাদের ।
শুভ কামনা সবসময়ই রয়েছে ❣️

বাহ, এই প্রথম আমি আপনার ছবিতে দক্ষিণ কোরিয়ার একটি জাদুঘর দেখলাম। আমি ড্রাগন ও ফিনিক্সের বিভিন্ন শিল্প ও ভাস্কর্য এবং প্রাচীন কোরিয়ান রয়্যাল প্যালেস জুয়েলারি সেট দেখতেও আগ্রহী এবং এখন পর্যন্ত এটি দেখতে খুব সুন্দর দেখাচ্ছে।

ভাগ করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ আমি আপনার পোস্টে অনেক জ্ঞান পেয়েছি আপনার শেয়ার করা ছবিগুলি পড়ে এবং দেখে খুশি হলাম ..

ওয়াও জাস্ট অসাধারণ হয়েছে ছবিগুলো। আপনি প্রায় অনেক কয়টা দেশ ই ঘুরেছেন।১০,১১,১২ নাম্বার ছবিগুলো দেখে অসাধারণ এবং আমি মুগ্ধ হয়ে গেলাম। দাদা আপনি তো বেশ ভালোই আনন্দ করেছেন। যাই হোক আপনার যাত্রা পথ শুভ হোক। সব সময় দোয়া থাকবে।

আপনার তোলা সবগুলো ছবি অনেক ভালো হয়েছে। দেখতে পেরে অনেক ভালো লাগলো। ধন্যবাদ আমাদের মাঝে শেয়ার করে আমাদের দেখার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য। শুভকামনা এবং ভালোবাসা ভালোবাসা রইলো আপনার প্রতি।

আপনি খুবই সুন্দর ফটোগ্রাফি করেছেন। আপনার প্রত্যেকটা ফটোগ্রাফি দেখে আমি মুগ্ধ হয়ে গেছি। এত সুন্দর ফটোগ্রাফি যা বারবার দেখতে ইচ্ছা করল। খুবই দক্ষতার সাথে ফটোগ্রাফি গুলো করেছেন এবং দক্ষিণ কোরিয়া খুবই বিলাসবহুল এবং সুন্দরতম দেশ, এটা আমাদের ফটোগ্রাফির মাধ্যমে প্রকাশ পেয়েছে। কোরিয়ার ন্যাশনাল প্যালেস মিউজিয়াম (গিয়েংবকগুং প্যালেস) - এর প্রধান দরজা এই ফটোগ্রাফিটা আমার খুবি ভালো লাগছে। আপনার জন্য অনেক অনেক শুভকামনা রইল।🌺💖

অনেক সুন্দর সুন্দর ফটোগ্রাফি করেছেন দাদা। আপনার ফটোগ্রাফি দেখে আমরা বুঝতে পেরেছি দক্ষিণ কোরিয়া অনেক পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন একটি দেশ আর জাতীয় জাদুঘরে ভরে উঠেছে দক্ষিণ কোরিয়ার সকল ঐতিহ্য। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ এত সুন্দর একটি অ্যালবাম আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য।

দক্ষিণ কোরিয়া জায়গাটা খুবই সুন্দর, একদম স্বচ্ছ এবং পরিপাটি। এছাড়া ও কোরিয়ানরা তাদের সংস্কৃতির ব্যাপারে খুবই যত্নশীল। প্রতিটা ছবি অনেক সুন্দর তুলেছেন ভাইয়া, আপনার ছবিগুলোর মাধ্যমে আমরা যেন কিছুটা হলেও দক্ষিণ কোরিয়া উপভোগ করতে পারছি।

the first time i have an idea on the museum of south Korea it's intersting thank you

দাদা আপনার দক্ষিণ কোরিয়ার ভ্রমনের ছবি গুলো দেখতে অসাধারণ লাগছে।মনে হয় একজন প্রোফেশেনাল ফটোগ্রাফির মতো ফটোগ্রাফি লাগছে দাদ। অনেক সুন্দর করে আমাদের তুলে ধরছেন।অনেক ধন্যবাদ দাদা।

আগের পোস্টটিতে আমরা দক্ষিন কোরিয়ার কিছু দর্শনীও স্থানের ছবি দেখেছিলাম।এইবার আপনি জাদুঘর কিছু ছবি আমাদের মাঝে শেয়ার করেছেন,আপনার ছবির মাধ্যমে আমরা অনেক কিছু জানতে পারলাম।দক্ষিন কোরিয়ার ঐতিহ্য সম্পরকে।যা আমাদের জ্ঞানের পরিধিকে বাড়ায় দেয়।আপনাকে অনেক ধন্যবাদ এইসব ছবি আমাদের কে দেখানর জন্য।

দাদা আপনার প্রতিটি ছবি খুবই ভালো লেগেছে আমার। দক্ষিণ কোরিয়া আপনি খুব সুন্দর দিন যাপন করেছেন। ঘোরাঘুরি করতে আমার খুব ভালো লাগে। আপনার দেশের বাইরের ছবিগুলো দেখে খুবই ভাল লেগেছে আমার। এ ধরনের পোস্ট সব সময় দেখতে চাই। আমি আশা করি আপনার বাইরের দেশের বিভিন্ন ফটোগুলো দেখতে পারবো। শুভকামনা রইল দাদা আপনার জন্য

পূর্বে দক্ষিণ কোরিয়ায় তোলা যে ছবিগুলো শেয়ার করেছিলেন সেগুলোও খুব সুন্দর ছিল দাদা। খুব ভালো লাগলো আজকের এই ছবিগুলোও। খুব সুন্দর সুন্দর জায়গা, এক পলকে দেখা হয়ে গেল দাদা। অনেক অনেক ধন্যবাদ দাদা,আমাদের সাথে এগুলো শেয়ার করার জন্য।

কোরিয়ার রাজপরিবারের ঐতিহ্যকে খুব সুন্দর ভাবে মিউজিয়ামে রেখে দেওয়া হয়েছে যেটা ভবিষ্যৎ প্রজন্ম এবং মানুষের কাছে অনেক কিছু বুঝতে সহযোগিতা করবে যে, তখনকার সময়ের সংস্কৃতি এবং অবস্থা কি ছিল। খুব সুন্দর করে তারা তাদের সংস্কৃতিকে লালন করছে।
আপনাকে ধন্যবাদ খুব চমৎকারভাবে আপনার ভ্রমণের বিশেষ করে মিউজিয়াম এর ভেতরের ছবি গুলো শেয়ার করার জন্য যেগুলো অনেক সুন্দর ছিল।

দাদা আপনার ফটোগ্রাফিগুলো খুব সুন্দর হয়েছে বরাবরের মতো। আপনার মাধ্যমে কোরিয়ার রাজ পরিবারের নানান ঐত্যিবাহী পুরোনো জিনিসের ছবি আমরা দেখতে পেলাম এবং অনেক কিছু জানতে পারলাম। ৫,১০,১১ নম্বর ছবিটা আমার কাছে অনেক বেশি সুন্দর লেগেছে।১৭ নম্বর ছবির খাবারগুলোর পরিবেশনা খুব ভালো লাগছে দেখতে।

ভ্রমন আমার সবচেয়ে প্রিয় সখ। সুযোগ পেলেই আমিও ঘুরতে বের হয়। আপনার এই পোস্টটি দেখে দক্ষিণ কোরিয়া ভ্রমনের ইচ্ছে জাগছে। সুযোগ পেলে একবার ঘুরে আসবো দক্ষিণ কোরিয়া