আরো এক বার নার্সারি তে ঘুরতে যাওয়া ও ফুলের ছবি তুলা || ১০% প্রিয় লাজুক খ্যাঁক এর জন্য।

in hive-129948 •  4 months ago 

হে লো আমার বাংলা ব্লগ বাসী। কেমন আছেন সবাই। আশা করি ভালো আছেন। আমিও অনেক ভালো আছি। আবার ও হাজির হলাম একটি পোস্ট নিয়ে। আশা করি সবার ভালো লাগবে।



প্রথমেই সবাইকে জানাই নতুন বছর এর শুবেচ্ছা। আজ আপনাদের সাথে শেয়ার করবো আবারো আমার বন্ধু সাজ্জাদ সোহান এর সাথে নার্সারি তে ঘুরতে যাওয়ার গল্প। যেখানে অনেক ফুলের ছবি তুলেছিলাম। তো চলুন শুরু করা যাক।


IMG_20220112_161626.jpg

আমি ও আমার বন্ধু সাজ্জাদ সোহান।
https://w3w.co/flashing.blogging.unique

images (17).jpeg

নার্সারি যাওয়ার প্ল্যান

যারা আমার ব্লগ নিয়মিত পড়েন তারা জানেন আমি প্রায় ই নার্সারি তে যেতে ভালোবাসি। কয়দিন আগেও গিয়েছিলাম আমার বন্ধু সহ। ভাবলাম অনেক দিন হয়ে গেছে আবার যাইতে হবে। কিন্তু সময় করে উঠতে পারছিলাম না। কারন বিকালের দিকে টিউশনি থাকে। ঝামেলা হয়ে যায় এই জন্য। সোহান কয়েক দিন ধরেই বলতে ছিলো চল যাই একদিন। কিন্তু সময় করতে পারছিলাম না। তো একদিন বিকালে সোহান কল দিয়ে বললো নার্সারি তে যাবি? ছবি তুলবো কিছু। সেদিন আমার বিকালের একটা টিউশনি ছিলো না। তাই ভাবলাম সময় যেহেতু আছে একটু ঘুরে আসা যাক। গেলে মন ও ফ্রেশ হবে। আবার সাথে কিছু ছবি ও তোলা হবে। ওরে বললাম আচ্ছা তাহলে ১০ মিনিট এ প্রস্তুত হয়ে বার হচ্ছি।

images (17).jpeg

IMG_20220112_154357.jpg

বাসা থেকে বের হয়ে ছবিটি তুলেছিলাম।
https://w3w.co/love.easygoing.unsigned


বনরুপা দিয়ে নার্সারিতে যাওয়া

১০ মিনিট পর আমি প্রস্তুত হয়ে বাসা থেকে বের হয়ে যাই। রাস্তায় উঠে একটু পর সোহান রে কল দেই। ও বলে ওদের বাসার এখানে আসতে। আমি বললাম যাবো তো আমাদের এইদিক দিয়ে আমাদের বাসার এদিকে চলে যায়। ও বললো আচ্ছা। তারপর আমি একটু সামনের দিকে গেলাম। দেখলাম সোহান আসতেছে। পরে আমরা এক সাথে বনরুপার দিকে রওনা দিলাম। যেতে যেতে আমি ফটোগ্রাফি করতে শুরু করলাম। মজাই লাগলো। আমি কিছু ছবি তুললাম। সোহান কিছু ছবি তুললো। এভাবে বনরুপা হয়ে আমরা নার্সারিতে চলে যাই। গিয়েই মন টা জুড়িয়ে যায়। নিস্তব্দ একটি পরিবেশ। ফুলের ঘ্রাণে এ যেনো মনোমুগ্ধকর একটি পরিবেশ। কার না প্রান জুড়াবে এখানে।


IMG_20220112_160551.jpg

একটি গাঁদা ফুল।
https://w3w.co/steep.unloading.connector


নার্সারিতে ঢুকেই প্রথমে পেয়েগেলাম গাঁদা ফুল। মোবাইল ফোন বের করে সাথে সাথেই ক্লিক। কেমন হয়েছে জানিনা। গাঁদা ফুল সবার ই পছন্দ। সব দিক থেকেই গাঁদা ফুল আমার অনেক ভালো লাগে। দুই রঙ এর গাঁদা ফুল ই আমার ভালো লাগে।


images (17).jpeg

নার্সারির ভিতর ঘোরাঘুরি আর ছবি তোলা

নার্সারিতে ঢুকে সেই গাঁদা ফুল এর ছবি তুলে আগে কিছুক্ষন ভিতরে হাঁটাহাঁটি করি। অনেক ভালো লাগে। বিশেষ করে ঢাকাতে এই ধুলোবালি ভরা বায়ু তে নিশ্বাস নিয়ে ক্লান্ত আমি। এর ভিতর নার্সারি তে ঢুকলে একটূ হাফ ছেড়ে বাচা যায়। মন টাই পুরো ঠান্ডা হয়ে যায়। আর ফুলের ঘ্রাণে তো প্রান জুড়াবেই। তারপর ছবি তুলা শুরু করলাম। আপনাদের সাথে নিচে কিছু ছবি শেয়ার করলাম।


IMG_20220112_160616.jpg

ক্রাউন অফ থ্রনস ফুল।
https://w3w.co/seriously.wealth.group


ক্রাউন অফ থ্রনস এই ফুলটি অনেকেই চিনেন। আমার কাছে ভালোই লাগে। আশা করি আপনাদের কাছেও ভালো লাগবে। আগেও আমি এই ফুলের ছবি দিয়েছি। তাই আর আজ বেশি কিছু বললাম না। দেখেই তো মনে হচ্ছে আসলেই ক্রাউন।


IMG_20220112_160728.jpg

গোলাপি রঙ এর ছোট একটি ফুল।
https://w3w.co/seriously.wealth.group


এই ফুল গুলোর নাম জানিনা। তবে এটি ছোট অনেক। ম্যাক্রো মোড এ অনেক কাছ থেকে তুলেছি ছবিটি। কেউ যদি এটির সঠিক নাম জানেন তাহলে জানাবেন। আমি গুগল লেন্স ব্যবহার করেও সঠিক নাম জানতে পারলাম না।


IMG_20220112_164527.jpg

ছবি তোলার ফাকে আমি আর সোহান।
https://w3w.co/seriously.wealth.group


images (17).jpeg

ছবি তোলা শেষে একটু খাওয়া দাওয়া

অনেক গুলো ছবি তুলে সেখান থেকে বের হয়ে আসি। ভালোই লাগে অনেক। তারপর আমি আর সোহান ঠিক করলাম আজ কিছু স্ট্রিট ফুড ট্রাই করা যাক বাসায় ব্যাক করার সময়। তো দুজন মিলে বাজারের দিকে চলে গেলাম।

IMG_20220112_170258.jpg

স্ট্রিট ফুড এর দোকান।
https://w3w.co/february.unheated.dubbing

বাজারে গিয়েই এই দোকান পেয়ে গেলাম। তখন সেখানে বার্গার আর নুডলস অর্ডার দিলাম। একটু অপেক্ষা করলাম তারপর আমাদের খাবার এসে গেলো। খাবার গুলো খুবই মজার ছিলো।

IMG_20220112_171007.jpg

নুডলস এর ছবি।
https://w3w.co/february.unheated.dubbing

নুডলস টি খুবই ভালো লেগেছে। বার্গার ও খারাপ লাগেনি। তবে নুডলস টা বেশি ভালো লেগেছে। সবজি ছিলো সাথে। আমি সাথে সস আর মেয়োনিজ দিয়ে খেয়েছি। তাই আমার কাছে বেশি মজা লেগেছিলো।

IMG_20220112_171018.jpg

খাবার হাতে নিয়ে আমি আর সোহান একটি ছবি তুলি।
https://w3w.co/february.unheated.dubbing


তো এই ছিলো আজকের পোস্ট এ। আশা করি ভালো লেগেছে। কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না। শুভকামনা রইলো সবার জন্য।


░▒▓█►─═ ধন্যবাদ ═─◄█▓▒░

New Project.gif

⋆ 🎀 𝒞😍𝓃𝓃𝑒𝒸𝓉 𝑀𝑒 🏵𝓃 🎀 ⋆
Discord | Twitter | Facebook
Steemit |Instagram | Youtube |
Authors get paid when people like you upvote their post.
If you enjoyed what you read here, create your account today and start earning FREE STEEM!
Sort Order:  

সত্যি বলতে নার্সারিতে গাছের সাথে কিছু সময় কাটালে বেশ ভালো লাগে, পরিবেশটা ও সুন্দর থাকে , এছাড়াও কিছু ফটোগ্রাফি হয়ে যায় তাই আমার বারবার নার্সারি গুলোতে ঘুরতে ভালো লাগে।

হ্যা বন্ধু। আমার কাছেও অনেক ভালো লাগে ।তাইতো যাওয়া হয় মাঝে মধ্যেই।

আমি নিজেও প্রায়ই নার্সারিতে যায় তবে গাছ কিনতে না দেখতে যায়। নার্সারির রঙ বেরঙের ফুল এবং নানা প্রজাতির গাছ আমার ভালো লাগে। নার্সারির ফুলের ফটোগ্রাফি গুলো দারুণ করেছেন। এবং এটা আমার বেশ ভালো লাগে যে নার্সারিতে আমরা অনেক অপরিচিত ফুল দেখতে পাই।

হ্যা ভাই নার্সারিতে ঘুরতে অনেক ভালো লাগে। অনেক মজা হয়। শান্তি লাগে প্রকৃতির মাঝে।