বৈশালীতে একদিন শীতের সকাল।।তখন:ডিসেম্বর ২০২১।।বর্তমান:১৬ মে ২০২২।।

in hive-129948 •  last month 

IMG_20211108_125038.jpg

হ্যালো বন্ধুরা কেমন আছেন?আশা করি ভালো আছেন এবং সুস্থ আছেন।সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে আমার পোস্ট লেখা শুরু করছি।আশা করি ভালো লাগবে।কয়েক মাস আগে দিল্লির পাশে গাজিয়াবাদে বিশেষ কাজে গাজিয়াবাদ গিয়েছিলাম।জায়গাটার নাম ছিল বৈশালী।কাজের কারণে বাইরে বেড়ানো একদমই হয়নি।তবে একদিন বেশ সকালে বেলা ইচ্ছে করে বেরিয়েছিলাম।তখন কয়েকটি মুহূর্ত ক্যামেরাবন্ধী করেছিলাম।শীতকাল ছিলো তাই বেশ শীত ও লাগছিলো।তবে সকালের স্নিগ্ধ পরিবেশ আমাকে বেশ মুগ্ধ করেছিল।বৈশালী শহর টা বেশ পরিষ্কার।এই শহরটা নতুনভাবে পরিকল্পিত উপায়ে সাজানো হয়েছে।তাই এই শহরটাকে আমার বেশ ভালো লেগেছিলো।আমি সেই সকালের কয়েকটি ফটো আপনাদের সাথে ভাগ করে নেবো।

IMG_20211123_095623.jpg

IMG_20211123_095637.jpg

IMG_20211121_135347.jpg

IMG_20211108_125021.jpg
প্রথমে আমি পায়ে হেঁটে মোটামুটি কাছে দূরে ঘুরে বেড়ালাম।দেখলাম শহর টা সবে জেগে উঠছে।দোকানদার রা তাদের দোকান পরিষ্কার করছে।আমি হেঁটে হেঁটে দেখতে লাগলাম।সেদিন শীতের প্রকোপ কম ছিলো।তাই সকালবেলা টা বেশ উপভোগ করেছিলাম।একটু চা খাবার ইচ্ছে ছিল কিন্তু চায়ের দোকানদার সবে দোকান সাজানো শুরু করেছিল তাই আর অপেক্ষা করিনি।

বৈশালীতে গাজিয়াবাদের সবচেয়ে বড় পাইকারি মাছ ও মুরগির বাজার রয়েছে।সারা দিল্লী এনসিআর এ মাছ ও মুরগির সাপ্লাই হয় এই বাজার থেকে।এই বাজারে যাওয়ার জন্য এগিয়ে গেলাম।তবে কাছাকাছি গিয়ে আমার ফায়ার এলাম।কারণ ওই জায়গাটা ছিল অনেক বেশি লোকে পরিপূর্ণ আর তখন দিল্লিতে নতুন করে করোনার প্রকোপ দেখা দিয়েছিলো।
IMG_20211123_095614.jpg

IMG_20211123_095626.jpg

এরপর ওখান দিয়ে আমার ফিরে এলাম আমার আপার্টমেন্ট এর কাছে।



|| আমার বাংলা ব্লগ-শুরু করো বাংলা দিয়ে ||

standard_Discord_Zip.gif

>>>>>|| এখানে ক্লিক করো ডিসকর্ড চ্যানেলে জয়েন করার জন্য ||<<<<<

Support @heroism Initiative by Delegating your Steem Power

250 SP500 SP1000 SP2000 SP5000 SP

Heroism_3rd.png


ধন্যবাদ।সবাই ভালো থাকবেন।

BoC- linet.png
-cover copy.png

|| Community Page | Discord Group ||


image.png

png_20211106_204814_0000.png

Beauty of Creativity. Beauty in your mind.
Take it out and let it go.
Creativity and Hard working. Discord

Authors get paid when people like you upvote their post.
If you enjoyed what you read here, create your account today and start earning FREE STEEM!
Sort Order:  

আপনি সম্ভবত বেশকিছুদিন সেখানে ছিলেন। তখনই আমি এই শহরটির নাম শুনতে পায়। শুনেছি দিল্লি অনেক জনাকীর্ণ স্থান। হয়তো সকালবেলা হওয়াতে সেখানে তেমন একটা লোক দেখা যাচ্ছে না। সকাল বেলাটা আসলে নিরিবিলি ঘোরাফেরার জন্য সবচাইতে ভালো সময়। নাস্তার ব্যাপারে তো কিছু উল্লেখ করলেন না দাদা। নাস্তার প্লেটটা দেখে মনে হচ্ছে কোন ভালো রেস্টুরেন্ট থেকেই নাস্তাটা সেরেছেন। সুন্দর লিখেছেন দাদা। ধন্যবাদ আপনাকে।

This post has been upvoted by @italygame witness curation trail


If you like our work and want to support us, please consider to approve our witness




CLICK HERE 👇

Come and visit Italy Community



কাজের ব্যস্ততার মাঝেও যে আপনি বাইরে বেরিয়েছেন এটি অনেক কিছু ।তবে করোনার মধ্যে আপনার বের হওয়া ঠিক হয়নি । তবে আপনার সকালের নাস্তাটা অনেক স্বাস্থ্যসম্মত। ধন্যবাদ আপনার অনুভূতি শেয়ার করার জন্য।

বৈশালীতে অনেক ঘুরলেন
বেছে বেছে তুললেন ভালো ভালো ছবি,
সঠিক বর্ণনায় ফুটিয়ে তুললেন
সেদিনের শীত ,সকালের কাহিনী।

সুন্দর ছিল ।
আশীর্বাদ কামনায়।

বৈশালী নামটি খুব সুন্দর, মনে হয় নামের পিছনে ইতিহাস রয়েছে সেই মহাভারতের কর্ণকে নিয়ে।যাইহোক পরিবেশটি ভীষণ ভালো করেই সাজিয়েছে।খাবারটি বেশ পুষ্টিকর ছিল দাদা,বিশেষ করে বেগুনের মধ্যে আলু মাখাটি দেখে বেশ ভালো লাগলো।ধন্যবাদ দাদা।

গাজিয়াবাদ এর বৈশালী ঘুরতে ঘুরতে কয়েকটি সুন্দর ফটোগ্রাফি আমাদের সাথে শেয়ার করলে এবং সেই দিনের কিছু অভিজ্ঞতার কথা বললে আজ তুমি ,দাদা I শীতের সকালে তোমার এই ঘোরার অভিজ্ঞতার কথা শুনে বেশ ভালো লাগলো I আমার খুবই ভালো লাগে নতুন নতুন শহর দেখতে নতুন নতুন জায়গা দেখতে I তোমারে ঘোরাঘুরির সময় যে খাবারের ফটোগ্রফি আমাদের সাথে শেয়ার করলে সেটা থেকে খিদে পেয়ে গেল I সুন্দর একটি ইউনিক আইটেমের খাবার এটি দেখে মনে হচ্ছে I

বৈশালিতে এতে আপনি খুব ভালো সময় কাটিয়েছেন দাদা। সেটা আপনার ফটোগ্রাফি গুলো দেখে বোঝা যাচ্ছে। আর পরিবেশটা খুবই সুন্দর। আরেকটা কথা হল আমার কাছে এই পাইকারি মার্কেট গুলো আসলে ভালো লাগে এখানে যদি কিছু কেনা হয় তাহলে কিন্তু খুবই কম দামে কেনা যায়।

Hi @blacks,
my name is @ilnegro and I voted your post using steem-fanbase.com.

Come and visit Italy Community

বৈশালী নামটা কেন জানি খুব টানছে আমাকে যদিও ইন্ডিয়াতে কখনো পা রাখা হয়নি। আপনি ওখানে খুব উপযুক্ত একটা সময়ে গিয়েছিলেন। এমনিতে করোনার প্রকোপ তাই যত ভোরে পারা যায় বের হলে মানুষ কম থাকে। একটু ঘুরে দেখার সুযোগ পাওয়া যায় যেমনটা আপনি পেয়েছিলেন।

দাদা আমার এখনো মনে আছে , আপনি সেখানে সেবার মাস খানেক মতো ছিলেন এবং ওখানকার আবহাওয়ার ব্যাপারটা জানিয়েছিলেন। সেই সময় ব্যাক্তিগত একটা ব্যাপারে আপনাকে বার্তা পাঠিয়ে ছিলাম , সেই উওরে তখন আপনি ঐখানকার অবস্থার কথা জানিয়েছিলেন এবং সেই সময় একবার মাছ বাজারের বড় বড় মাছ নিয়েও একটা পোষ্ট করে ছিলেন ভাই । আমার এখনো মনে আছে । আসলেই শহরের পরিবেশটা বেশ ভালোই পরিষ্কার ও ছিমছাম।

এই বৈশালীর লেখাগুলো পড়ে বেশ ভালই লাগলো। আর খাবারটি দেখে তো একেবারে মুখে পানি চলে আসলো ভাইয়া।

শীতের সকাল আসলেই মুগ্ধ করে।যদিও সকাল সকাল উঠতে খুব কষ্ট কর।তবে বাহিরে হাটতে সেই মজা লাগে।বৈশালিতে খুব সময় কাটিয়ে ছিলেন,দেখেই বুঝা যাচ্ছে। ধন্যবাদ

nice & thanks for sharing this
visit my website - https://www.producttrunk.com/2022/05/amelia-wordpress-appointments-and.html

পুরনো স্মৃতিকে নতুন করে উপস্থাপন করার মাধ্যমে শীতের চমৎকার মুহূর্তগুলোকে উপভোগ করতে পারলাম। বৈশালী জায়গাটা অনেক সুন্দর।