বসুন্ধরায় বন্ধু-বান্ধবের সাথে আড্ডা

in hive-129948 •  2 months ago 
💖 সবাইকে স্বাগতম 💖

IMG_20220808_122429.jpg

গতকাল রাতে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিলাম প্রায় ১০ ঘণ্টার জার্নি শেষে সকালে এসে ঢাকায় পৌঁছাই। সর্বপ্রথম আগে ফ্রেশ হয়ে ভার্সিটির কাজে চলে যাই। আমার কিছু বন্ধুবান্ধব আছে সেই ভার্সিটিতে একসাথে দেখা করলাম এবং ভার্সিটির কাজগুলো মোটামুটি শেষ করে সবাই চিন্তা করলাম একটু আড্ডা দেব।।

বন্ধুরা ছিল আমার কলেজেরই, তারা সেই ভার্সিটিতেই পড়ছে। আমি আগে যে ভার্সিটিতে পড়তাম সেখান থেকে ক্রেডিট ট্রান্সফার করে এই ভার্সিটিতে চলে আসব। তাই এই ভার্সিটি তে আসা। সব ফর্মালিটিজ পূরন করে আমরা সবাই গেলাম বসুন্ধরায়। আমাদের ভার্সিটি থেকে বসুন্ধরা খুব একটা বেশি দূরে নয়। তারাও আমার সাথে জয়েন হল এবং পুরনো দিনের কথাগুলো অনেক মনে পরে গেল। আগে আমরা প্রায়ই বসুন্ধরায় আড্ডা দিতাম।

IMG_20220808_123550.jpg

IMG_20220808_123548.jpg

পান্থপথে আমাদের কলেজ ছিল, সেই কলেজের সব বন্ধু-বান্ধবদের অনেক মিস করি। সময়েরর ব্যবধানে সবাই কই কই যেন হারিয়ে গিয়েছে। তারপর গতকাল সবার সাথে কন্টাক্ট করার চেষ্টা করেছিলাম। বেশির ভাগ বন্ধুরা তাদের ব্যস্ততার কারণে আসতে পারেনি। আজকে ছোটখাটো একটি বন্ধুদের মিটআপের আয়োজন করেছিলাম। সবাই আমরা একে অপরের সাথে দেখা করলাম।। আগের দিন গুলো সত্যি অনেক মধুর ছিল, প্রতিদিন কলেজে এসে আড্ডা দিতাম, সবার সাথে ঘুরতে যেতাম তারপরও পার্ট টাইম জব করতাম।

IMG_20220808_122424.jpg

IMG_20220808_112844.jpg

বসুন্ধরায় বেশিরভাগ সময় আমরা উইনডো শপিং করতাম। শুধুমাত্র ঘুরাঘুরি করতাম, খাওয়া দাওয়া করতাম, মুভি দেখতাম এসবের মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল।। খুব কম সময় আছে বসুন্ধরা সিটি থেকে আমরা শপিং করেছি। এই জায়গাটির সাথে অনেক স্মৃতি জড়িয়ে রয়েছে। যেই টেবিলে সবসময় বসে আমরা আড্ডা দিতাম, সেই টেবিলটি ঠিকই আছে কিন্তু যেই টেবিলে সদস্য গুলো কোথায় যেন হারিয়ে গেছে এই ব্যস্ত অচেনা শহরে।। আজ সবার সাথে আড্ডা দিলাম ভালই লাগলো, দুপুরে খাওয়া দাওয়া করলাম। সেই ২ ঘন্টা বেশ ভালোই কেটেছে। যদিও অনেক ক্লান্ত। ৩৫ ঘন্টা হল ঘুম হয় নি। আড্ডা শেষে আবার ভার্সিটি তে গেলাম। সেখানে বেশ কিছু কাজ ছিলো, সেই কাজ শেষ করতে করতে বিকাল হয়ে গেলো। বিকালে রামপুরার দিকে রওনা হলাম।

IMG_20220808_123121.jpg

আজ আর বেশি কিছু লিখতে পারছি না। তবে এতো ক্লান্তির পর ও বন্ধুদের সাথে আড্ড দিতে ভালোই লাগলো। ধন্যবাদ সকলকে।



Support @heroism Initiative by Delegating your Steem Power

250 SP500 SP1000 SP2000 SP5000 SP

Heroism_3rd.png


photo_2021-06-30_13-14-56.jpg

photo_2021-06-28_11-13-39.jpg

আমি আল সারজিল ইসলাম সিয়াম। আমি বাঙালি হিসেবে পরিচয় দিতে গর্ববোধ করি। আমি বর্তমানে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের বিএসসি-র ছাত্র। আমি স্বতন্ত্র স্বাধীনতা সমর্থন করি। আমি বই পড়তে এবং কবিতা লিখতে পছন্দ করি। আমি নিজের মতামত প্রকাশ করার এবং অন্যের মতামত মূল্যায়ন করার চেষ্টা করি। আমি অনেক ভ্রমণ পছন্দ করি। আমি আমার অতিরিক্ত সময় ভ্রমণ করি এবং নতুন মানুষের সাথে পরিচিত হতে ভালোবাসি। নতুন মানুষের সংস্কৃতি এবং তাদের জীবন চলার যে ধরন সেটি পর্যবেক্ষণ করতে ভালোবাসি। আমি সব সময় নতুন কিছু জানার চেষ্টা করে যখনই কোনো কিছু নতুন কিছু দেখতে পাই সেটার উপরে আকর্ষণটি আমার বেশি থাকে।

A5tMjLhTTnj4UJ3Q17DFR9PmiB5HnomwsPZ1BrfGqKbjddgXFQSs49C4STfzSVsuC3FFbePnB7C4GwVRpxUB36KEVxnuiA7vu67jQLLSEq12SJV1etMVkHVQBGVm1AfT2S916muAvY3e7MD1QYJxHDFjsxQDqXN3pTeN2wYBz7e62LRaU5P1fzAajXC55fSNAVZp1Z3Jsjpc4.gif



বিষয়: বসুন্ধরায় বন্ধু-বান্ধবের সাথে আড্ডা

কমিউনিটি : আমার বাংলা ব্লগ

আন্তরিক ভাবে ধন্যবাদ জানাই এই কমিউনিটির সকল সদস্য কে, ধন্যবাদ.......

Authors get paid when people like you upvote their post.
If you enjoyed what you read here, create your account today and start earning FREE STEEM!
Sort Order:  

অনেক লম্বা জার্নি গেছে দেখি ভাই। আসলে বন্ধু বান্ধব পেলে সব ক্লান্তি নিমিষেই দূর হয়ে যায়। তিন দিন আগে আমিও ঘুরে আসলাম বসুন্ধরা থেকে বোনদের নিয়ে। প্রায় চার ঘন্টা ধরে চলে তাদের শপিং। জীবন শেষ পুরো 🤪

ঠিক বলেছেন ভাই, ৪ ঘন্টা শপিং হাহাহা, আমি হলে পালিয়ে যেতাম।

আসলে আপনি ঠিকই বলেছেন ভাইয়া বন্ধুদের সাথে যেকোনো সময় আড্ডা দিতে অনেক ভালই লাগে। যতই ক্লান্তি থাকুক না কেন বন্ধুরা সবাই এক জায়গায় হলে সব কিছু মনে হয় আবে ক্লান্তি শেষ হয়ে শরীরে এনার্জি চলে এসেছে। আপনি অনেক সুন্দর ভাবে বসুন্ধরায় বন্ধুবান্ধবদের সাথে আড্ডা দিয়েছেন।

ঠিক বলেছেন ভাই, বন্ধু মানেই ভালো লাগা।

আড্ডা দেওয়ার জায়গাটা বেশ বড়ো চুস করেছেন দেখছি। বন্ধু আর আড্ডা যেন একে অপরের পরিপূরক। ভালো থাকুন দাদা। সময়গুলো ভালো কাটুক আপনার।

আগে আমরা প্রায় প্রতিদিন সেখানেই আড্ডা দিতাম। আমাদের কলেজ থেকে ২ মি লাগে যেতে।

বেশ ভালো ইনজয় করেছেন বন্ধুদের সাথে চমৎকার একটি দিন কাটিয়েছেন, আগে জানলে হয়তো আপনাদের সাথে যুক্ত হতে পারতাম, তবে অন্য কোন একদিন দেখা হয়ে যেতে পারে, অনেক অনেক শুভকামনা রইল আপনার জন্য।

হু ভাই, অন্য একদিন দেখা হবে।

বসুন্ধরায় বন্ধু-বান্ধবের সাথে আড্ডায় বেশ ভালো সময় কেটেছে বোঝা যাচ্ছে।বসুন্ধরা সিটিতে আমার অনেক স্মৃতি আছে।যা আজ পুনরায় মনে পড়ে গেল।♥♥

হু, ঠিক বলেছো।

পুরনো বন্ধুদের সাথে সময় কাটাতে সব সময় অনেক ভালো লাগে। এটাই তো জীবন ভাইয়া সে টেবিল আছে সেই বেয়ারাও নেই সেই কাস্টমারও নেই কফি হাউজের আড্ডাটা আজ আর নেই।

গানটির কথা অনেক মনে পরছিলো সে দিন।

ক্লান্ত যতই থাকুক বন্ধু-বান্ধবীদের পেলে নিমিষেই দূর হয়ে যায় সকল ক্লান্তি। লম্বা জার্নি এবং বসুন্ধরায় বন্ধুদের সাথে কাটানো সময় আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

ঠিক বলেছেন ভাই, বন্ধুরা থাকলে ক্লান্তি থাকে না।

10 ঘণ্টার জার্নি অনেক দীর্ঘ সময়, আমি তো বেশি জার্নি করতেই পারি না।মনে হয় আকাশ ভেঙ্গে পড়ে আমার মাথায়,যাইহোক আপনি আপনার বন্ধুদের সঙ্গে একটু সময় কাটাতে পেরে ক্লান্তি দূর হয়েছে কিছুটা হলেও আশা করি।জায়গাটি বেশ সুন্দর, ধন্যবাদ আপনাকে।