আমার পছন্দের পটোল পোস্ত

in hive-120823 •  2 months ago  (edited)

IMG_20220920_231418.jpg

(আমার পছন্দের পটল পোস্ত)

বন্ধুরা,
আশাকরি আপনারা সবাই ভালো আছেন। সুস্থ আছেন এবং সব রকম সাবধানতা অবলম্বন করে চলেছেন।

অনেক দিন বাদে আজ সকালের কাজ সেরে যখন মেয়েকে স্কুলে দিয়ে আসতে গেলাম তখন দেখলাম বাজারে পটোল বিক্রি হচ্ছে ভাবলাম একটু পোস্ত দিয়ে রান্না করবো।

তাই একটু পটল কিনে নিলাম। আমরা বাপের বাড়ি যেহেতু এদেশিয় তাই পোস্তটা একটু বেশি ভালোবাসি আমি। আমার বাপের বাড়িতে পোস্ত সাধারনত প্রতিদিনের পদে দেখা যায়।

আমার শ্বশুরবাড়ি হল বাঙাল তাই ওরা কেউ পোস্তটা সেরকম ভালো বাসেনা কিন্তু আমি খেতে খুব ভালোবাসি।

তাই ভাবলাম রোজইতো সবার জন্য রান্না করি কতকিছু আজ একটু নিজের জন্য একটু রান্না করি। তাই আজকে পটল পোস্ত রান্না করলাম সেটাই আপনাদের সাথে ভাগ করে নেবো আজকে।

উপকারিতা :-

পটলে ক্যালরির পরিমান কম থাকে তাই সাধারণত ওজন কমানোর জন্য খুব উপকারী। পটলে ভিটামিন এ ও সি রয়েছে যা আমাদের ত্বককে খুব ভালো রাখে।

পটলের দানা ব্লাড সুগার কমাতে সাহায্য করে। পটল আমাদের শরীরের রক্ত পরিষ্কার করে। পটলে ফাইবার আছে তাই আমাদের শরীরের হজম শক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। পটলের দানা আমাদের পেটের সমস্যা জন্য খুব উপকারি।

তহলে চলুন বন্ধুরা আর অধিক সময় নষ্ট না করে। আপনাদের সাথে ভাগ করেনি কি ভাবে আমি পটল পোস্তটি বানালাম।

উপকরনঃ-

১)পটল=৬পিস(খোসা ছাড়ান)
২)পেঁয়াজ= ১টা বড় সাইজের(ঝিরি ঝিরি করে কুচান)
৩) কাঁচা লঙ্কা =২টো
৪)হলুদ=১চা চামচ।
৫)নুন=স্বাদ মত।
৬)চিনি= স্বাদ মত।
৭)পোস্ত বাঁটা=২চা চামচ।
৮)সরষেরতেল=পরিমানমত।

পদ্ধতিঃ-

১) প্রথমে শীলে কাচালঙ্কা আর পোস্তটা বেটে নিলাম।

IMG_20220922_210454.jpg

(শীলে পোস্ত আর কাঁচালঙ্কা)

২)কড়াই টা মাঝারি আঁচে বসিয়ে দিতে হবে। কড়াই গরম হয়ে গেলে।
৩)তারমধ্যে তেল দিয়ে দিতে হবে।
৪)তেল গরম হলে তার মধ্যে পটলগুলো দিয়ে ভালো করে ভেজে নিতে হবে তারপর একটি পাত্রে নামিয়ে রাখুন।

IMG_20220922_211525.jpg

(পটল ভাজা)

৫)এবার অবশিষ্ট তেলে আরেকটু তেল দিয়ে তারমধ্যে কুঁচানো পেঁয়াজ গুলো দিয়ে একটু ভেজে নিন।

IMG_20220920_231735.jpg

(কুঁচানো পেয়াজ ভাজা)

৬)এবার ভাজা পেঁয়াজের মধ্যে পোস্ত বাটা, নুন,হলুদ,আর একটু মিষ্টি দিয়ে ভালো করে একটু নেড়ে চেড়ে নিতে হবে।

IMG_20220922_211347.jpg

(কষানো মশলায় ভাজা পটল দেওয়া)

৭)তারপর তাঁর মধ্যে ভাজা পটলগুলো দিয়ে ২থেকে৩মিনিট নেড়ে চেড়ে তাঁর মধ্যে পরিমান মত গরম জল দিয়ে দিতে হবে।

IMG_20220922_211418.jpg

(গরম জল দেওয়া)

৮)এবার একটি ঢাকনা দিয়ে চাপা দিতে হবে। ৫মিনিট বাদে ঢাকনা খুলে সেটা পাত্রে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

খুব সহজ রান্নার পদ্ধতি, আশাকরি আপনারা বাড়িতে এইভাবে একদিন তৈরি করবেন এবং খেয়ে জানাতে ভুলবেন না কেমন লাগলো আপনাদের পটল পোস্ত ।

আজ এখানেই শেষ করলাম, ভাল থাকবেন সবাই।সুস্হথাকবেন। নিজের এবং কাছের মানুষের খেয়াল রাখবেন।
শুভরাএি.

Authors get paid when people like you upvote their post.
If you enjoyed what you read here, create your account today and start earning FREE STEEM!
Sort Order:  
Loading...

পোস্তর দাম এখন সোনার মতন, আমিও পোস্ত দিয়ে তৈরি বিভিন্ন পদ খুব পছন্দ করি। শুধু পোস্ত বাটা সঠিক ভাবে বানাতে জানলে গরম ভাতে খুব ভালো লাগে খেতে।

ওরে বাবা! পোস্তর দাম যা হয়েছে, খেতে ইচ্ছে করলেও দামের কথা ভেবে ইচ্ছেটা সংবরণ করে নিতে হয়। খুব ভালো ভাবে লিখেছেন রান্নাটি।